প্রতারণা মামলায় কুষ্টিয়া ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি রেজিষ্টার কারাগারে

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ,
মে ১৮, ২০১৮ ৫:৫৪ অপরাহ্ণ
কাজী আতিকুর রহমান, নড়াইল ।। নড়াইল সদর উপজেলার আউড়িয়া ইউনিয়ানের লস্করপুর গ্রামের দুই যুবককে বিদেশ পাঠানোর নামে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আলমগীর হোসেন খান নামের এক প্রতারককে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৭মে) নড়াইল নালিশী আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মো. জাহিদুল আজাদ জামিন না মঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন।
জানা গেছে, আলমগীর হোসেন খান কুষ্টিয়া ইসলামি বিশ্ব বিদ্যালয়ের সহকারি রেজিষ্টার পদে কর্মরত আছেন । তার বাড়ি পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া থানার মিঠাখালি গ্রামে।
মামলার বিবরণে জানা যায়, নড়াইল সদর উপজেলার আউড়িয়া ইউনিয়নের লস্করপুর গ্রামের অহিদুজ্জামান এবং বাগবাড়ি গ্রামের শহিদুল ইসলামের সঙ্গে আলমগীর হোসেনের পূর্ব পরিচয় আছে । দুইজনকে সিঙ্গাপুর পাঠানোর নামে ২০১৭ সালের ৫ জানুয়ারি ষ্ট্যাম্পে লিখিত চুক্তির মাধ্যমে ১০ লাখ টাকা নেয় । তাদের ৬ মাসের মধ্যে সিঙ্গাপুর পাঠানোর চূড়ান্ত কথা দেয় । আলমগীর হোসেন দুজনকে পাসপোর্ট করে দেন । পাসপোর্ট হাতে পেয়ে আলমগীরের ওপর তাদের বিশ্বাস বেড়ে যায় । কিন্তু আলমগীর হোসেন তাদের বিদেশ পাঠানোর কথা বলে নানা তালবাহানা করতে থাকে । এতে তাদের সন্দেহ হলে টাকা ফেরৎ চাইলে গড়িমসি শুরু করে । নিরুপায় হয়ে ২০১৭ সালের ২৮ নভেম্বর লিখিত ষ্ট্যাম্পের চুক্তিনামা দেখিয়ে শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে নড়াইল সদর নালিশী আদালতে মামলা করেন । আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আলমগীরের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন । সমন পেয়ে আলমগীর হোসেন আজ বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করেন।

Comments are closed.