ঢাবি ক্যাম্পাস অস্থিতিশীল করার চেষ্টাকারীদের রুখে দেয়ার আহ্বান

মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ ,
জুলাই ২, ২০১৮ ৭:২২ অপরাহ্ণ
ঢাবি প্রতিনিধি ।। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে শিক্ষার সুষ্ঠু স্বাভাবিক পরিবেশ নিশ্চিত করণ ও মাননীয় উপাচার্যের বাসভবনে ছাত্রদল -শিবির কর্তৃক নারকীয় হামলাকারী সন্ত্রাসীদের খুঁজে বের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবীতে আজ রবিবার  ঢাকা বিশ্বববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে দিনভর অবস্থান কর্মসূচি পালন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সচেতন শিক্ষার্থীবৃন্দ। আজ শাহবাগে জড়ো হয়ে একটি সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে এই কর্মসূচি শেষ হয়। আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক ছাত্রলীগ নেতা অভিজিৎ সরকারের সঞ্চালনায় উক্ত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক উপ-সম্পাদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ আল-মামুন। সমাবেশে আরোও বক্তব্য রাখেন মিজানুর রহমান লিটন, শের সম্রাট খান, সায়েদুল হক জুয়েল, জিয়া হক, রায়হান আহমেদ, শাহপরান, লামিয়া ইসলাম প্রমুখ।

এই সময় ছাত্রলীগ নেতা আল-মামুন বলেন, “কোটা সংস্কার আন্দোলনের নামে ছাত্রদল-শিবিরের সন্ত্রাসীরা ক্যাম্পাসে শিক্ষার স্বাভাবিক পরিবেশ বিঘ্নিত করতে উঠেপড়ে লেগেছে। এরা মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী। তারেকের নির্দেশে ক্যাম্পাস অস্থিতিশীল করে এরা সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে চায়। শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বিনষ্টকারী এসব ছাত্রদল-শিবিরের নেতাকর্মীদের যেখানে দেখা যাবে সেখানেই গণধোলাই দেয়ার আহ্বান জানান এই ছাত্রনেতা।
এই সময় অভিজিৎ সরকার বলেন “ক্লাস পরীক্ষা বাতিলের ঘোষনা সাধারণ শিক্ষার্থীরা প্রত্যাখান করেছে পাশাপাশি আন্দোলন জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় কে অস্থিতিশীল করতে চাইলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।
এই সময় বহিরাগত শিবিরের কয়েক জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করতে দেখা যায়।

Comments are closed.