ভোটকেন্দ্র থেকে বিএনপি এজেন্ট বের করে দেবার অভিযোগ

পাপন সরকার শুভ্র , রাজশাহী
জুলাই ৩০, ২০১৮ ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির পোলিং এজেন্টদের ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। কেন্দ্রগুলো হচ্ছে ২১ নম্বর ওয়ার্ডের সিরোইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র। এবং বিল সিমলা এলাকায় ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক কেন্দ্রে মেয়র পদে নৌকা প্রতীক ও কাউন্সিলর পদে একজন প্রার্থী ছাড়া আর কোনো প্রার্থীর পোলিং এজেন্টকে কেন্দ্রে ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।

আজ সোমবার সকাল ৮টা থেকে রাজশাহীতে ভোট শুরু হয়। খবর পেয়ে সকাল ৮টার দিকে সেখানে আসেন ধানের শিষের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট তোফাজ্জল হোসেন। সকাল সোয়া ৯টার দিকে তিনি বলেন, সকাল সাড়ে ৭টার দিকে সকল এজেন্টরা কেন্দ্রে পৌঁছেছেন। কিন্তু তাঁদের ঢুকতে দেওয়া হয়নি। আমি এক ঘণ্টার বেশি সময় ধরে এখানে অপেক্ষা করছি ও প্রিসাইডিং কর্মকর্তার কাছে মিনতি করছি—আমার এজেন্টদের ঢুকতে দেওয়া হোক। তিনি তাঁদের ঢুকতে দিচ্ছেন না।

ভোটকেন্দ্রে দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা জানে আলম কেন্দ্রে মোবাইল নিয়ে কেন্দ্রে ঢোকায় ধানের শীষের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট তোফাজ্জল হোসেন ভর্ৎসনা করেন। তখন তোফাজ্জল হোসেন বলেন, আমি রিটার্নিং কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলেছিলাম। উনি বলেছেন, যেকোনো সময় আসলে এজেন্ট নেওয়া যাবে, কিন্তু এখন তিনি নিচ্ছেন না।

এ ছাড়া রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিল সিমলা এলাকায় ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স কেন্দ্রে (পুরুষ) মেয়র পদে নৌকা প্রতীক ও কাউন্সিলর পদে একজন প্রার্থী ছাড়া আর কোনো প্রার্থীর পোলিং এজেন্টকে কেন্দ্রে ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। কাউন্সিলর পদে ঘুড়ি প্রতীকের প্রার্থী হাবিবুর রহমানের পোলিং এজেন্ট মো. বাবলুর রহমানকে কেন্দ্রের ফটক থেকে বের করে দেওয়া হয়। এ সময় প্রিসাইডিং কর্মকর্তার সঙ্গে দেখা করতে চাইলে তাঁর মুঠোফোন আছাড় দিয়ে ভেঙে ফেলা হয়।

বাবলুর রহমান অভিযোগ করেন, লাটিম প্রতীক নিয়ে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বী করা প্রার্থী মিজানুর রহমানের সমর্থকেরা তাঁকে কেন্দ্রে ঢোকার সময় চ্যালেঞ্জ করেন। এক পর্যায়ে তাঁকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে চলে যেতে বলে। একই কেন্দ্রে ঠেলাগাড়ি প্রতীক নিয়ে কাউন্সিলর পদের প্রার্থী আলমগীরের এজেন্ট হুমায়ুন কবির সকাল আটটার দিকে কেন্দ্রের ফটকে আসলে মিজানুর রহমানের সমর্থকেরা তাঁকে ঘিরে ধরে। এ সময় ফটকে পুলিশও ছিল। ওই এজেন্টকে কেন্দ্রে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

সিরোইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মহিলা কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা হচ্ছেন ব্রজেন্দ্রনাথ সরকার। পুরুষ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা জাকির হোসেন মিয়া। এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রিজাইডিং অফিসার বলেন, ‘এজেন্টরা সময়মতো আসেননি। আমরা আটটা পর্যন্ত যারা এসেছেন তাঁদের গ্রহণ করেছি। এখন আসলে তো আমরা আর নিতে পারি না।’

এ ব্যাপারে মহিলা কমপ্লেক্স কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আবদুর রহমান বলেন, ধানের শীষের পাঁচজন এজেন্টের তালিকা দেওয়া হয়েছিল। তাঁদের কেউই আসেননি। ভোট শুরু হওয়ার আধ ঘণ্টা আগে ওই কেন্দ্রের ফটকে শতাধিক ব্যক্তিকে জড়ো থাকতে দেখা যায়। ওই ব্যক্তিদের গলায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনের নৌকা প্রতীকের ব্যাজ ও কাউন্সিলর পদের প্রার্থী মিজানুর রহমানের লাটিম প্রতীকের ব্যাজ গলায় ঝুলিয়ে রাখতে দেখা যায়। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বাবলুকে কেন্দ্রের সামনে দাঁড়িয়ে নৌকা প্রতীকের কর্মী সমর্থকদের দিক নিদের্শনা দিতে দেখা যায়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ পাওয়া