কুলিয়ারচর - আগস্ট ২, ২০১৮ ৫:২৯ অপরাহ্ণ

কুলিয়ারচরে সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান

কষ্ট আর ভোগান্তি হলেও ছাত্র আন্দোলনকে সমর্থন জানাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। রাজধানীর এয়ারপোর্ট রোডে ২ কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যু এবং পরের দিন একই কায়দায় কুমিল্লায় এক ছাত্রী নিহতের ঘটনায় কোমলমতি শিশুদের আন্দোলন শুরু হয়।

এ আন্দোলনকে ঘিরে নিরাপত্তার স্বার্থে গত ১ আগষ্ট রাত ৮ টার দিকে সরকারের ঘোষণা মোতাবেক ২ আগষ্ট বৃহস্পতিবার দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কথা থাকলেও সরকারের আদেশ অমান্য করে গতকাল বৃহস্পতিবার কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার এমাদ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় ও মুছা মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে অন্যান্য দিনের ন্যায় পাঠদান চালু ছিল।

সরেজমিন দুটি বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, শিক্ষকগণ ক্লাসে পাঠদান চালু রেখেছেন। পাঠদান চালু রাখার বিষয়ে মুছা মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু নাছের মোঃ আব্দুল্লাহ ও সহকারি প্রধান শিক্ষক মোঃ মোবারক হোসেন বলেন, সরকারি ভাবে বিদ্যালয় বন্ধের ঘোষণা হয়েছে কি না আমাদের জানা নেই। শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার কারণে বিদ্যালয়ে পাঠদান চালু রাখা হয়েছে। এমাদ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক সুধাংশু চন্দ্র সূত্রধরের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আলতাফ হোসেনের সাথে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাঁর সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) জ্যোতিশ্ব পাল এর সাথে যোাগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি খোজ নিয়ে দেখছি। উপজেলার মাছিমপুর গ্রামের মোঃ সালাহ উদ্দিন সহ একাধিক ব্যাক্তি বলেন, সরকারের ঘোষণা অমান্য করে ২ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু রাখার ব্যাপারে কঠোর সমালোচনা করেন। তারা বলে ওই দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এদেশের সরকারের নিয়মনীতির বাহিরে কিনা?

 

1 Comment

Comments are closed.