কটিয়াদীতে জনতার ধাওয়ায় পানিতে ডুবে, অতঃপর মৃত্যু

আতিকুর রহমান কাযিন । নিজস্ব প্রতিবেদক , মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ
আগস্ট ৭, ২০১৮ ১০:১৪ পূর্বাহ্ণ

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে চোর সন্দেহে নাজির আকন্দ (৩২) জনতার ধাওয়া খেয়ে পানিতে ডুবে মৃত্যুের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার রাতের প্রথম প্রহরে কাজিরচর গ্রামের সাফির উদ্দিন প্রধানের বাড়ির পেছনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নাজির আকন্দ (৩২) উপজেলার মসূয়া ইউনিয়নের কাজিরচর গ্রামের মো. মন্টু আকন্দের পুত্র। নাজির পেশায় একজন অটোরিক্সা চালক।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কাজিরচর নেছারিয়া দাখিল মাদ্রাসার পাশে মো.আলমগীরের মুদি দোকানে সোমবার রাতের প্রথম প্রহরে দুজন ব্যক্তি তালায় হাত দিলে দোকানের মালিক বিষয়টি দেখতে পেয়ে চোর চোর বলে চিৎকার করে। পরে এলাকাবাসী জড়ো হয়ে তাদের ধাওয়া করলে দৌড়ে পালানোর সময় অন্ধকারে একটি পরিত্যাক্ত পোলট্রি খামারের পিলারে ধাক্কা খেয়ে ডোবায় পড়ে যায় নাজির। জনতা রাকিব নামে একজন আটক করলে ও নাজিরকে খোঁজ পায়নি।

সোমবার সকালে ইউপি সদস্য বিষয়টি নিয়ে বৈঠকে বসলে আটক রাকিব জানান তার বাড়ি ভৈরব উপজেলায়। নাজিরের সঙ্গে সে বেড়াতে এসেছে। জনগণের ধাওয়ায় নাজির পালিয়ে গেছে।

বৈঠকে সবার উপস্থিতিতে মন্টু আকন্দের কাছে তার ছেলের সঙ্গে বেড়াতে আসা রাকিবকে বুঝিয়ে দেন।

এদিকে সকাল ৯টার দিকে এলাকার লোকজন ডোবায় নাজিরের লাশ পড়ে থাকতে দেখে কটিয়াদী মডেল থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

এ ব্যাপারে কটিয়াদী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাকির রব্বানী জানান, নাজির আকন্দ দীর্ঘদিন ধরে জেলার বন্দরনগরী ভৈরবে বসবাস করত। রোববার ভৈরব থেকে রাকিব নামে এক অটোরিক্সা চালককে সঙ্গে নিয়ে বাড়িতে আসে। এলাকাবাসী তাকে চোর সন্দেহে ধাওয়া দিলে ডোবায় পড়ে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় কোনো মামলা হয়নি।

Comments are closed.

LATEST NEWS