দেশের খবর - August 11, 2018

নরসিংদীতে প্রেমের ফাঁদে পড়ে রহস্যময় মৃত্যু!

সজীব আহমেদ : কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ ফরিদপুর গ্রামের মৃত আসাদ খানের ছেলে নিহত মো: কালাম খান (৩৮) তিনি মিল্কভিটার একজন কর্মচারী ও সিবিএ নেতা ছিলেন বলে জানা গেছে।
কালাম তিন সন্তানের জনক ছিলেন। দক্ষিন ফরিদপুর গ্রামের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জৈনক ব্যক্তির মতে বিয়ের আগে থেকেই বেলাব উপজেলার চর বেলাব গ্রামের মনির খান সাবেক বেলাব উপজেলার সাধারন সম্পাদক এর মেয়ে তানিয়ার সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল।
পারিবারিকভাবে বিয়ে না হওয়ায় তানিয়া প্রবাসী সোহেল নামের এক ব্যক্তির সাথে বিয়ে হয় এবং মৃত কালামও অন্যত্র বিয়ে করে।বিয়ের পরে দীর্ঘদিন পরকীয়া প্রেমে আবদ্ধ ছিল।পরকীয়া সম্পর্কের জের ধরে এ খুন করা হয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (৯আগস্ট) বিকালে কালাম তাঁর কর্মস্থল মিরপুর মিল্কভিটার অফিস থেকে গ্রামের বাড়ী ফরিদপুরে আসেন। রাত ১০টার দিকে কালাম তাঁর মায়ের ঔষধ আনার জন্য ফরিদপুর মাজার হতে পার্শ্ববর্তী বেলাব বাজারে যান। পরে কালাম রাতে বাড়ীতে ফিরে না আসলে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুজি শুরু করে।
এক পর্যায়ে শুক্রবার (১০ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে কুলিয়ারচর ও বেলাব উপজেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত ব্রহ্মপুত্র নদের পশ্চিম পাশে চরবেলাব নামাপাড়া ইটখলা সংলগ্ন স্থানে কালামের ক্ষত বিক্ষত লাশ পাওয়া পায়। খবর পেয়ে বেলাব থানা পুলিশ কালামের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
এ ব্যপারে বেলাব থানার ওসি (তদন্ত) আরিফুর রহমান আরিফ মুঠোফোনে জানান, অর্থনৈতিক লেনদেন কিংবা পরকীয়ার কারনে ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে। বিভিন্ন দিক থেকে নানা ধরনের বিষয় শুনছি। এখন পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি। এবিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

 


আরও পড়ুন

৩ Comments

  1. We’re a group of volunteers and opening a new scheme in our community. Your website offered us with valuable info to work on. You’ve done an impressive job and our entire community will be grateful to you.

  2. I simply want to tell you that I am newbie to blogging and absolutely savored this blog site. Probably I’m going to bookmark your site . You amazingly have tremendous article content. Kudos for sharing your blog.

Comments are closed.