রাজনীতি - August 14, 2018

ছাত্রলীগে কোনো অনুপ্রবেশকারীর ঠাই নেই : গোলাম রাব্বানী

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে বাংলাদেশ বির্নিমাণের প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে রয়েছে সংগঠনটির গৌরবের এক অনন্য সাধারণ ইতিহাস।

২৯ তম সম্মেলনের পর প্রায় আড়াই মাস পরে ছাত্রলীগের জুলাই মাসের শেষ দিন শেখ হাসিনার মনোনীতরা সংগঠনের শীর্ষ নেতৃত্বে আসেন। মাঝে মধ্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে নিয়ে কিছু বির্তকের শুরু হলে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী, প্রধানমন্ত্রী ও ছাত্রলীগের সাংগঠনিক নেত্রী শেখ হাসিনা নিজেই বাছাই করেছেন এবারের ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতৃত্ব।

ছাত্রলীগের নতুন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন গোলাম রব্বানী। দায়িত্ববার বুঝে নেয়ার শুরুতেই দারুণ এক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় পড়তে হয়েছে ছাত্রলীগকে। কোমলমতি শিশুদের নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনকে ভিন্নখাতে নেয়ার জন্য দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রকারীরা মাঠে নেমেছিল। কোমলমিত শিশুদের আন্দোলনের সাথে একাত্নতা ঘোষণা করে নিয়মিত তাদের সাথে কথা বলেছেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

আলাপকালে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে মনোনীত করেছেন। আমার ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করতেই নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। শেখ হাসিনার মডেল ছাত্রলীগে কোনো অনুপ্রবেশকারী প্রবেশ করতে পারবে না বলেও ঘোষণা দিয়ে গোলাম রাব্বানী বলেন, বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রশ্নে আপোষহীন, আদর্শিক ও মানবিক ছাত্রলীগই উপহার দিতে চাই।

এবারের ছাত্রলীগে শুধু সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকই কাজ করবেন না, প্রতিটি নেতাকর্মীকে তাদের দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়া হবে এবং তাদের কাছ থেকে কাজ আদায় করার দায়িত্ব আমাদের।

শেখ হাসিনার মডেল ছাত্রলীগে মানবিক ছাত্রলীগের বহিঃপ্রকাশ এখনই সবাই দেখতে পাচ্ছেন। বর্তমান ছাত্রলীগ লোভ লালসার ঊর্ধ্বে থেকে সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের অধিকার আদায়ে কাজ করবে। বর্তমান ছাত্রলীগের আমলেই ডাকসুসহ সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ নির্বাচন হবে বলেও আশাবাদী গোলাম রাব্বানী। এছাড়া ছাত্রলীগের গরিব ও মেধাবিদের জন্য আলাদা ফান্ড সৃষ্টিরও পরিকল্পনা রয়েছে। এবার কোনো কমিটি বাণিজ্য হবে না বলেও সাফ জানিয়েছেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

এদিকে, ছাত্রলীগের এক অনুপ্রবেশকারীকে ধাওয়া দিয়ে মধুর ক্যান্টিন থেকে বের করে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।  রবিবার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ছাত্রলীগে কোনো অনুপ্রবেশকারীর ঠাঁই হবে না। ঘোষণার একদিনের মাথায়ই সোমবার দুপুরে ছাত্রলীগের গত কমিটিতে পদ ভাগিয়ে নেয়া ছাত্রদল থেকে অনুপ্রবেশকারী শেখ চয়নকে ধাওয়া দিয়ে মধুর ক্যান্টিন থেকে ধাওয়া দিয়ে বের করে দেয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

শেখ চয়ন নাম পাল্টিয়ে মাহফুজ চয়ন নামে ছাত্রদলের একটি ইউনিয়ন কমিটির সহ-সম্পাদক ছিলেন। এরপর ছাত্রলীগের সাইফুর রহমান সোহাগ এবং এস এম জাকির হোসাইনের নেতৃত্বাধীন কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্যপদ ভাগিয়ে নিয়েছিলেন।


আরও পড়ুন

২ Comments

  1. This is very interesting, You’re a very skilled blogger. I have joined your feed and look forward to seeking more of your fantastic post. Also, I have shared your web site in my social networks!

  2. I simply want to mention I am just newbie to blogs and definitely enjoyed you’re web-site. More than likely I’m want to bookmark your website . You really come with incredible article content. Thanks for sharing your web page.

Comments are closed.