বগুড়ায় ককটেল ও জিহাদী বই উদ্ধার, পৃথক অভিযানে আটক ২৯

এম নজরুল ইসলাম , বগুড়া
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮ ১০:০৪ অপরাহ্ণ

নাশকতার পরিকল্পনার গোপন বৈঠকের সময় জামায়াত নেতা আনোয়ারুল সহ ২২ জন, সাজাপ্রাপ্ত একজন ও ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ। পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে ৫টি ককটেল, জিহাদী বই ও দেশীয় অস্ত্র সহ তাদের আটক করা হয়।

শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সনাতন চক্রবর্তী এসব তথ্য নিশ্চিত করে জানান, শুক্রবার সকালে জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলার বিজরুল এলাকায় জামায়াত নেতা আনোয়ারুলের বাড়িতে গোপন বৈঠকের খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় আনোয়ারুলসহ ১৬ জন নেতাকর্মীকে আটক করা হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে পাঁচটি ককটেল, জিহাদী বই ও কয়েকটি মোটরসাইকেল জদ্ধ করা হয়। অপরদিকে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বগুড়া সদর এলাকায় অভিযান চালিয়ে জামায়াতের ছয় নারী নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, আটকৃতরা নাশকতার উদ্দেশে গোপন বৈঠকে বসেছিলো। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এমন খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

এদিকে, বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে জেলার শেরপুর উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের মির্জাপুর ইউনিয়নের রাজাপুর নামক এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৬জন ডাকাতকে আটক করেছে থানা পুলিশ। এরা হলো- চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানার নাছিরাবাদ গ্রামের মৃত বশির উদ্দিনের ছেলে ফরহাদ হোসেন (২০), একই জেলার বায়েজিদ বোস্তামি থানার নাছিরাবাদ গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে মো. মামুুন (২২), একই থানার রৌফাবাদ গ্রামের আজগর আলীর ছেলে আকবর আলী (৩২), ভোলা জেলার সদর উপজেলার নুরুল হকের ছেলে ইসমাঈল হোসেন (২০), বগুড়া জেলার ধুনট উপজেলার খাদুলী গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে মো. লিটন হোসেন (২৩) ও শেরপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের মধ্যভাগ গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে লালন ফকির (২৫)। এদের কাছ থেকে দেশীয় অস্ত্র রাম-দা, হাসুয়া, ছোড়া, চাকু উদ্ধার করা হয়।

অন্যদিকে, জেলার আদমদীঘি থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে তিন বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি জাহাঙ্গীর আলমকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে। সে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার সুলতানপুর গ্রামের ইছাম উদ্দীনের ছেলে।

Comments are closed.