ডোমারে চাঞ্চল্যকর স্বাধীন হত্যার রহস্য উদঘাটন ও আসামী গ্রেফতার

আলমগীর হোসেন , ডোমার । নীলফামারী
সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮ ৬:৫৯ অপরাহ্ণ

ডোমারে চাঞ্চল্যকর স্বাধীন হত্যার এক সপ্তাহের মধ্যে হত্যার রহস্য উদঘাটন ও একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ।

গত ১৮সেপ্টেম্বর ডোমার বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরন (নেসকো) কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলীর গাড়ীর ড্রাইভার (চুক্তি ভিত্তিক) আবু সাইদ স্বাধীন (২০)কে ভাড়া বাসায় নিজ শয়ন কক্ষে খুন করে দুস্কৃতিকারীরা। পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার ও ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। ১৮ সেপ্টেম্বর নিহতের মা রেজিয়া সুলতানা বাদী হয়ে ডোমার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১২ ধারাঃ ৩০২/৩৪, ডোমার সার্কেল জয়ব্রত পালের নির্দেশনায় ডোমার থানা অফিসার্স ইনচার্জ মোকছেদ আলীর নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম তাৎক্ষনিকভাবে তদন্ত শুরু করে ্্এবং ডোমার বিদ্যুৎ বিতরন ও বিক্রয় (নেসকো) কেন্দ্রের কর্মকর্তা কর্মচারীসহ এলাকার সন্দেহভাজন ৮জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ডোমার পৌরসভার ডাঙ্গাঁপাড়া এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে ডোমার বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরন কেন্দ্রের বিল বিতরনকারী অর্পনুল ইসলাম অর্পন নামে এক যুবককে গ্রেফতার দেখিয়ে অন্যজনদের ছেড়ে দেয়। পুলিশ আদালতে অর্পনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডের তৃতীয় দিনে অর্পনুল ইসলাম অর্পন সিনিয়র জুডিসিয়াল মেজিস্ট্রেট সামিউল ইসলামের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকার উক্তি মুলক জবানবন্দি দেয়। অর্পন স্বীকার উক্তিতে বলেন ৪ হাজার টাকার চুরির অপবাদ সহ্য করতে না পেরে স্বাধীনকে হত্যার পরিকল্পনা করি। চাকুরীর সুবাদে বন্ধু আবু সাইদ স্বাধীনকে সবজিকাটা কাঠারি দিয়ে স্বাধীনের শয়নকক্ষে রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় জবাই করে হত্যা করেন ও পরে রুমের বাহির দিকে দরজায় তালা লাগিয়ে দিয়ে নিজ বাড়ীতে ফিরেন।

এ ব্যাপারে ডোমার থানা অফিসার্স ইনচার্জ মোকছেদ আলী জানান, অর্পনুল ইসলাম অর্পন চাঞ্চল্যকর স্বাধীন হত্যার কথা ১৬৪ ধারায় স্বীকার করেছেন ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ পাওয়া