জাতীয় - অক্টোবর ৬, ২০১৮ ৮:২৫ অপরাহ্ণ

খালেদার চিকিৎসা শুরু রোববার, নিতে পারবে পছন্দমতো চিকিৎসক

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিক্যাল বোর্ড নিজেদের মধ্যে সভা করার পর রোববার থেকে তার চিকিৎসা শুরু হবে।

মেডিক্যাল বোর্ডে থাকা চিকিৎসকদের বাইরে বিএনপিনেত্রীর যদি পছন্দের কোনো চিকিৎসক থাকেন, তিনি জানালে সেই চিকিৎসকেরও ব্যবস্থা করা হবে।

শনিবার রাজধানীর শাহবাগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে খালেদা জিয়া ভর্তি হওয়ার পর এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হারুন-অর-রশিদ।

তিনি বলেন, ‘কারাগার থেকে উনি (খালেদা জিয়া) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছেন। বর্তমানে তিনি কেবিন ব্লকের ষষ্ঠ তলায় অবস্থান করছেন। উনার বিষয়ে মহামান্য হাইকোর্ট থেকে একটি আদেশ জারি করা হয়েছিল। ওই নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করেছি।’

‘উনি আসার পরে বোর্ডের সভাপতি অর্থাৎ উনি যার অধীনে ভর্তি হয়েছেন, অধ্যাপক ড. আবদুল জলিল চৌধুরী, উনাকে দেখেছেন। চিকিৎসা শুরুর আগে যেসব ফর্মালিটিজ অথবা সৌজন্যতা, সেগুলো পূরণ করেছেন। উনি আমাদের হাসপাতালে ভর্তি আছেন,’ বলেন বিএসএমএমইউর পরিচালক।

হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘রোববার বেলা ১টায় পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট মেডিক্যাল বোর্ডের সভা হবে। ওই বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা উনার চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু করতে পারব, ইনশাআল্লাহ।’

মেডিক্যাল বোর্ডে রয়েছেন- অধ্যাপক ড. আবদুল জলিল চৌধুরী (সভাপতি), নিউমোটলজিস্ট অধ্যাপক ড. সৈয়দ আতিকুল হক, কার্ডিওলজিস্ট অধ্যাপক সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জী, অর্থোপেডিক বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক নকুল কুমার দত্ত এবং ফিজিক্যাল মেডিসিন বিশেষজ্ঞ সহযোগী অধ্যাপক ডা. বদরুন্নেসা আহমেদ।

খালেদা জিয়ার পছন্দের চিকিৎসক মেডিক্যাল বোর্ডে আছেন কি না, জানতে চাইলে হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘রায়ে যেভাবে বলা আছে… আমরা বোর্ড করে দেব। এরপর উনার যদি কোনো চিকিৎসকের পছন্দ থাকে উনি বলার সঙ্গে সঙ্গে আমরা ব্যবস্থা করে দেব।’

হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী মেডিক্যাল্ বোর্ড গঠন করা হয়েছে কি না, এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে।’

বিএনপিনেত্রীর স্বাস্থ্যের কী অবস্থা দেখলেন, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘দেখুন, উনি কেবল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আমরা উনার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার ব্যবস্থা করছি। কালকে মেডিক্যাল বোর্ডের সভা হওয়ার পর আমরা আরো বিস্তারিত জানাতে পারব।’

‘উনাকে (খালেদা জিয়া) মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান দেখেছেন। উনি আমাদের সঙ্গে কথা বলেছেন, কুশল বিনিময় করেছেন। আমাদের উপাচার্য মহোদয় গিয়েছিলেন, তার সঙ্গে কুশল বিনিময় করেছেন, কথা বলেছেন।’

খালেদা জিয়া কতদিন হাসপাতালে অবস্থান করবেন? প্রশ্ন করা হলে হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘তিনি এখানে অসুস্থ অবস্থায় ভর্তি হয়েছেন। এখন বলা যাবে না তিনি কতদিন অবস্থান করবেন।’

হাসপাতালের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে কি না, জানতে চাইলে প্রতিষ্ঠানটির এই পরিচালক বলেন, ‘অবশ্যই। সার্বক্ষণিকভাবে আমরা বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি।’

1 Comment

Comments are closed.