ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এগিয়ে বলসোনারো ও হাদাদ

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট , দক্ষিণ আমেরিকা
অক্টোবর ৮, ২০১৮ ১০:০৫ পূর্বাহ্ণ

নানা টানাপোড়েনের মধ্যে অনুষ্ঠিত ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এগিয়ে আছেন ডানপন্থী প্রার্থী জেইর বলসোনারো ও বামপন্থী ওয়ার্কাস পার্টির প্রার্থী ফার্নান্দো হাদাদ। প্রথম দফার ভোট গ্রহণে কেউই প্রয়োজনীয় ৫০ শতাংশ ভোট না পাওয়ায় তাদের দ্বিতীয় দফার নির্বাচনে অংশ নিতে হবে। রবিবার ভোটগ্রহণের পর সাবেক সেনা কর্মকর্তা বলসোনারোর কর্মীরা প্রথম দফাতেই প্রয়োজনীয় ভোট পাওয়ার দাবি করলেও শেষ পর্যন্ত অল্পের জন্য হাতছাড়া হয়েছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, আগামী ২৮ অক্টোবর দেশটিতে দ্বিতীয় দফা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার দিন নির্ধারিত রয়েছে।

ব্রাজিলের নির্বাচনের প্রাক জনমত জরিপে এগিয়ে ছিলেন কারাবন্দি সাবেক প্রেসিডেন্ট লুলা ডি সিলভা। আইনি লড়াইয়ে আটকে যায় বামপন্থী ওয়ার্কাস পার্টির নেতা লুলার প্রার্থীতা। তার পরিবর্তে ওয়ার্কাস পার্টির নেতা ও লুলার  ঘনিষ্ট সহযোহী ফার্নান্দো হাদাদ নির্বাচনে অংশ নেন। রবিবারের ভোটগ্রহণে তিনি ২৭ শতাংশ ভোট পেয়েছেন বলে জানিয়েছে ব্রাজিলের নির্বাচনি আদালত। অপরদিকে ডানপন্থী বলসোনারো পেয়েছেন ৪৭ শতাংশ ভোট।

ফল ঘোষণার সময়েই রাজধানী রিও ডে জেনিরোর বাইরে বাররা দ্য টিজুকার সাগরপাড়ে বলসোনারোর বাড়ির বাইরে জমায়েত হতে থাকে তার সমর্থকরা। অনেকেই ব্রাজিলের পতাকা উড়িয়ে তার ও সেনাবাহিনীর সমর্থনে স্লোগান দিতে থাকেন। আবার অনেকেই প্রতিদ্বন্দ্বি দলের নেতা লুলার ছবি আঁকা বেলুনে আগুন ধরিয়ে দেয়। দুর্নীতির দায়ে কারাদণ্ড ভোগ করছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট লুলা ডি সিলভা।

সমকামীতা, নারী ও সংখ্যালঘু ইস্যুতে বলসোনারোর বক্তব্য ঘিরে ব্রাজিলের অনেকে নাখোশ হলেও রাজনৈতিক বিচক্ষণতা ও অপরাধের বিষয়ে কঠোর দৃষ্টিভঙ্গির কারণে অনেকেই সমর্থন করেন তাকে। সাবেক এই সেনা কর্মকর্তাকে প্রায়ই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট দুয়ার্তে রদ্রিগেজের মিশেল বলে বর্ণনা করা হয়। সমর্থকরা তাকে দেখে থাকেন ঐক্যের প্রতীক হিসেবে। ২০ বছর বয়সী সামরিক পুলিশ কর্মকর্তা লুকার অলিভিয়েরা বলেন, বলসোনারো বিভক্ত সবাইকে এক করেছেন। তার জয় মানে সবাইকে একসাথে আনা। তিনি রাজনীতির ওপর আমার পরিবারের বিশ্বাস ফিরিয়ে এনেছেন। এক সময়ে তা পুরোপুরি হারিয়ে গিয়েছিল। আবার অনেক ভোটার মনে করেন দুর্নীতির বিষয়ে তার স্বচ্ছ রেকর্ড তাকে এগিয়ে রেখেছে। ৩৯ বছর বয়সী দাঁতের ডাক্তার পিন্টো বলেন, রাজনীতিবিদরা কেবল চুরি করে আর তিনি তা করবেন না।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ পাওয়া