একরাতে পঁচিশটি পূজামন্ডপ পরিদর্শন করলেন এডিসি জেনারেল

গত ১৫ ই অক্টোবর সারা দেশের ন্যয় কিশোরগঞ্জেও শুরু হয়েছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব “শারদীয় দূর্গা পূজা”। দূর্গা পূজা উপলক্ষে কিশোরগঞ্জ শহর উৎসবে পরিণত হয়েছে। মন্ডপে মন্ডপে পূণ্যার্থীদের ভিড়। পূজা উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগসহ তদারকির জন্য গঠন করা হয়েছে ছয়টি ভিজিলেন্স টিম।

সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে মহা সপ্তমীতে সরেজমিনে কিশোরগঞ্জ শহর ও তার আশপাশের ২৫ টি পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করেন কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও উপ-সচিব তরফদার মোঃ আক্তার জামীল।

তিনি এ সময় শ্রী শ্রী কালী বাড়ী মন্দির, গৌরাঙ্গ বাজার পূজা মন্ডপ, অগ্রগামী সংঘ (সতাল), লোকনাথ সংঘ (সতাল), নব জাগরণ যুব সংঘ (সতাল), শ্রী শ্রী গোপাল জিউর মন্দির, দাস পাড়া পূজা মন্ডপ, সেবা আশ্রম পূজা মন্ডপ, জোড়া পুকুর পাড় মন্দির, শিব বাড়ী পূজা মন্ডপ, শ্যাম সুন্দর আখড়া, বংশি বদন মন্দির, বকুলতলা পূজারি সংঘ, শ্রী শ্রী বিবেকানন্দ পাঠাগার মন্দির, শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রমের পূজা মন্ডপ, হরিজন যুব সংঘ পূজা মন্ডপ, আশীর্বাদ সংঘ,অনির্বাণ সংঘ,নতুন পল্লি সংঘ, প্রগতি সংঘ মন্দির, জাগ্রত সংঘ মন্ডপ, নব যুগের নতুন কলি সংঘ পূজা মন্ডপ, শ্রী শ্রী লক্ষী নারায়ন জিউর মন্দির, শ্রী শ্রী সিদ্বেশ্বরী কালীবাড়ী মন্দির ও গৌর নিতাই জিউর আখড়া পরিদর্শন করেন। এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পূজা উৎযাপন পরিষদের সভাপতি বাবু মাখন দেবনাথ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ ও সংশ্লিষ্ট পূজা মন্ডপের সদস্যবৃন্দ।


আরও পড়ুন