শশুর বাড়ীতে বেড়াতে আসা জামাইকে পিটিয়ে জখম

শাহাদাত হোসাইন সাদিক , রায়পুর । লক্ষ্মীপুর
নভেম্বর ৮, ২০১৮ ১০:৪৪ অপরাহ্ণ

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে পৌর শহরের পূর্বলাছ গ্রামের মৃধ্যা বাড়ী এলাকা শ্বশুর বাড়ীতে আসা প্রবাসী ফরিদ হোসেন (৩৪) কে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে ওই এলাকার ইব্রাহিম গংদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাতে। আহত জামাই ফরিদ হোসেনকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রায়পুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে স্থানীরা। তার মাথা ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় কালো দাগ আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সে (ফরিদ) কেরোয়া এলাকার পাঠান বাড়ীর সদু মিয়ার পুত্র ও পৌর শহরের মৃধ্যা বাড়ীর আবুল খায়েরের মেয়ের জামাই।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ফরিদ হোসেন জানান, গতকাল বুধবার সন্ধায় আমার শশুর বাড়ীতে আসি। প্রবাসে চলে যাব বলে দেখা করতে আসলে শশুরের কাছে পাওনা আমার ৪০ হাজার টাকা নিয়ে যাওয়ার পথে রাস্তার পাশে অতর্কিতভাবে ইব্রাহিম নামের জৈনক ব্যক্তি ও আরো কয়েকজন মিলে আমাকে ঘেরাও করে স্টীলের লাইট দিয়ে মাথা এবং শরীরের বিভিন্ন জায়গায় পিটিয়ে গুরুতর আহত করলে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি। কে বা কারা আমাকে রায়পুর সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করায়। পরে আমার জ্ঞান ফিরে আসলে আমি দেখি আমার সাথে থাকা নগদ ৪০ হাজার টাকা ও গলায় থাকা একটি আট আনা স্বর্ণের চেইন নিয়ে যায়। তারা আমার মাথায় লাইট দিয়ে পিটিয়ে ফুলা ও বেদনাদায়ক জখম করে। শশুর বাড়ী বেড়াতে এসে মানসম্মানও হারালাম অর্থও হারালাম। আমি প্রশাসনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সকলের কাছে এর বিচার দাবী করছি।

প্রতিপক্ষ ইব্রাহিমদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি তাদেরকে কোন আঘাত করি নাই টাকা পয়সাও নেই নাই বরং তারাই আমার উপর অতর্কিতভাবে আঘাত করছে পুলিশ আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। যোগাযোগ করা হলে রায়পুর থানার উপ-পরিদর্শক আমির হোসেন জানান, আহত ফরিদের শশুর মোঃ আবুল খায়ের বিচার চেয়ে রায়পুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তদন্ত করে আইনগত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ পাওয়া