দেশের খবর - December 5, 2018

ময়মনসিংহে এক তরুনকে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করল দুর্বৃত্তরা

ময়মনসিংহে মাত্র ১০০ টাকা নিয়ে বিরোধের জেরে আশরাফুল ইসলাম রাব্বী (২৫) নামে এক যুবককে এ্যালোপাথারী কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে নগরীর প্রাণকেন্দ্র গাঙ্গিনাপাড় ট্রাফিক মোড় এলাকার নির্মানাধীন বর্ণালী সিটি সেন্টারের সামনে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে।

নিহত রাব্বী নগরীর নওমহল নন্দীবাড়ি এলাকার আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে।  সে পেশায় একজন ব্যাটারী চালিত অটোররিকশা চালক।  রাব্বীর সংসারে ১০ মাসের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে বলেও জানা গেছে।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানার ১নং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) চাঁন মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ‘নিহত রাব্বী অটোরিকশার ড্রাইভার। সে ঢাকা থেকে গত কয়েক দিন আগে ময়মনসিংহ এসে অটো চালানোর কাজের সন্ধান করছিল। তবে ঘটনাটি ছিনতাই না পূর্ব শত্রুতা এ বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না।  এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। তবে এ ঘটনায় এখনো কাউকে আটক করা যায়নি বলেও পুলিশের এই কর্মকর্তা জানিয়েছেন।’

এদিকে নিহত রাব্বীর বড় বোন আল্পনা আক্তার অভিযোগ করে বলেন, ‘গত রমজান মাসে রাব্বীর সাথে মনির নামে এক ড্রাইভার ও তার তিন ছেলে বাবু, পন্টি ও পাপেলের সঙ্গে একশত টাকা নিয়ে বিরোধ হয়। ওই ঘটনায় আদালতে একটি মামলাও চলছে। এরপর বেশ কয়েকদিন আগে আমার ভাইকে তারা ধরে নিয়ে মারধর করেন। পরে উল্টা আমাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন মনির। মূলত ওই বিরোধের জের ধরেই আজ মনিরের ছেলে বাবু, পন্টি ও পাপেলের সহযোগীরা মিলে ছোট ভাই রাব্বীকে এ্যালোপাথারী কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করেছে।’

অন্যদিকে ঘটনাস্থলের ব্যবসায়ীরা জানায়, সন্ধ্যা ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে হঠাৎ চিৎকার শুনে দৌড়ে এসে দেখি ৫/৭ জন যুবক ওই ছেলেকে কুপিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে পাঠায়।

তারা জানায়, প্রকাশ্যে দিবালোকে জনসম্মুখে নগরীর ব্যস্ততম সড়কে এমন ঘটনা নজিরবিহীন। তবে এর আগেও নগরীর ব্যস্ততম এ ট্রাফিক মোড় সংলগ্ন স্থানে প্রকাশ্য দিবালোকে বেশ কয়েকটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে বলেও দাবি করেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।


আরও পড়ুন