খেলার খবর - ডিসেম্বর ৭, ২০১৮ ৩:১৬ অপরাহ্ণ

মেসিকে বিদ্রুপ করে যা বললেন পেলে

লিওনেল মেসির থেকে তিনি নিজে অনেক ভাল ফুটবলার ছিলেন বলে দাবি করলেন ফুটবল সম্রাট পেলে। শুধু তা-ই নয়, আর্জেন্টাইন মহাতারকার প্রসঙ্গে বলে দিলেন, ‘ওর খেলায় তো একটাই স্কিল!’ এখানেই থামেননি ব্রাজিলীয় কিংবদন্তি। তিনি এমনকি বলেছেন, মেসির চেয়ে ম্যারাডোনাও অনেক ভাল ফুটবলার।

লা লিগায় মেসিকে বলা হয়, ‘হেভিওয়েট’ ফুটবলার। এক দশকের বেশি সময় ধরে স্পেনের লিগে তার দাপট অব্যাহত। অনেক বিশ্লেষক এমনও বলেন যে, মেসিই সর্বকালের সেরা। পাঁচ বারের ব্যালন ডি’ওর জয়ী মহাতারকার সংগ্রহে উপচে পড়ছে রেকর্ড আর ট্রফি। অসাধারণ স্ট্রাইকিং রেট। কিন্তু এত কিছুর পরেও প্রভাবিত হচ্ছেন না ফুটবল সম্রাট। ৩১ বছরের আর্জেন্টাইন ‘বিস্ময়’ তার কথায়, বিশেষ একটি ভঙ্গিতেই খেলে যান। তাও উল্লেখ করলেন যে মেসির সব সময় বাঁ পায়ে খেলে যাওয়ার প্রবণতা মারাত্মক। বিশ্ব ফুটবলের সেরা চরিত্রদের পাশাপাশি মেসি প্রসঙ্গে পেলের বিশ্লেষণ এ রকমই।

পেলে নিজে ফুটবল জীবনে এক হাজারের বেশি গোল করেছেন। তিন বার বিশ্বকাপ জয়ী ব্রাজিল দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন। তার সঙ্গে মেসির তুলনা হয় কি-না জানতে চাওয়া হলে পেলের মন্তব্য, ‘কী করে এমন একজনের সঙ্গে ওর তুলনা হয় যে ভাল হেড করতে পারে, বাঁ পায়ে শট নিতে পারে, ডান পায়ে শট নিতেও দক্ষ! মেসি তো শুধু বাঁ পায়ে শট নেয়। স্কিল বলতে ওই একটাই! আর হেডটাও ভাল করতে পারে না।’ এখানেই না থেমে পেলের আরও কথা, ‘তুলনাটা হয় কী করে? তুলনা করতেই হলে, এমন একজনের সঙ্গে করতে হবে, যে দু’পায়েই ভাল শট নিতে পারে। সঙ্গে হেডেও গোল করে।’

মেসির সঙ্গে নিজের তুলনার পাশাপাশি পেলে অন্য ফুটবলারদের প্রসঙ্গও টেনেছেন। ব্রাজিলীয় মহাতারকার সাফ কথা, শুধু তিনি নিজেই নন, বিশ্ব ফুটবলের অনেকেই মেসির থেকে এগিয়ে থাকবেন। পেলে কিন্তু মারাদোনার প্রসঙ্গ তুলে নিজের উচ্ছ্বাস গোপন করেননি। তার মন্তব্য, ‘আমি যতটা বুঝি, তাতে ম্যারাডোনা সর্বকালের অন্যতম সেরা। যদি কেউ আমাকে প্রশ্ন করেন, ম্যারাডোনা কি মেসির থেকেও বড়? তা হলে আমি বলব, ম্যারাডোনা অবশ্যই মেসির থেকে অনেক ভাল।’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘বেকেনবাউয়ার (ফ্রাঞ্জ), ক্রুয়েফও (ইয়োহান) কিন্তু অসাধারণ ফুটবলার ছিল।’ ব্রাজিলের একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পেলে পরিষ্কার বুঝিয়ে দিয়েছেন, তিনি মেসির বিরাট কিছু ভক্ত নন। তা আর্জেন্টাইন মহাতারকা ক্লাবের হয়ে ৫৬৭ গোল করুন বা দেশের হয়ে ৬৫টি! মেসির পাঁচ বার সোনার বল, ন’টি লা লিগা খেতাব এবং চার বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়কেও পেলে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছেন না। সূত্র: আনন্দবাজার।