চৌহালীতে মামার লাঠির আঘাতে দুই ভাগ্নে খুন

প্রতিনিধি , মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ
ডিসেম্বর ৯, ২০১৮ ১১:০৮ পূর্বাহ্ণ
সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দুই ভাগ্নেকে দাওয়াত দিয়ে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে চাচাতো মামা। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন।
নিহতরা হলেন- উপজেলার দক্ষিণ কোদালিয়া গ্রামের আন্তাজ আলীর ছেলে পশু চিকিৎসক কাউছার হোসেন (২৩) ও তার বড়ভাই মিল্টন হোসেন (৩৩)।
শুক্রবার রাতে ঢাকায় নেয়ার পথে কাউসারের মৃত্যু হয়। আর শনিবার দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মিল্টন মারা যান। এর আগে শুক্রবার রাতে চৌহালীর খাষপুখুরিয়া ইউপি সদস্যের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
নিহতদের ভাগ্নে মোঃ রেজাউল করিম জানান, দীর্ঘদিন থেকে আন্তাজ আলীর সঙ্গে মহিলা মেম্বার শিরিন সুলতানার স্বামী রফিকুল ইসলাম বকুলের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। শুক্রবার বিকালে বাড়িতে দাওয়াতের কথা বলে পশু চিকিৎসক কাউছারকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করেন পুর্বকোদালিয়া গ্রামের রশিদ মাষ্টারের ছোট ছেলে নাসির ও তার পরিবারের অন্যান্যরা।
খরব পেয়ে বড় ভাই মিল্টন এগিয়ে গেলে তাকেও পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। ঢাকায় নেয়ার পথে রাতেই কাউসারের মৃত্যু হয়। আর মিল্টন শনিবার দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এছাড়া আরও ৩ জন আহত হয়েছেন।
এ ঘটনায় নিহতদের মা বাদি হয়ে চৌহালী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।
চৌহালী থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত খাষপুখুরিয়া ইউপির সংরক্ষিত সদস্য শিরিন সুলতানাকে আটক করেছে চালান করা হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে। কান্নায় ভেঙ্গে পরছেন নিহতদের পিতা আন্তাজ আলী। এদিকে নিহতদের পরিবারের সদস্য ও আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে চলছে শোকের মাতম। কান্নায় ভেঙ্গে পরা আত্মীয় স্বজনদের সান্ত্বনা দিতে আশেপাশের এলাকা থেকে লোকজন ভীড় করছে নিহতদের বাড়ীতে।

 

 

Comments are closed.

সর্বশেষ পাওয়া