খেলার খবর - জানুয়ারি ৮, ২০১৯

টি-টুয়েন্টিতে মাশরাফীর ক্যারিয়ার সেরা বোলিং

সাংসদ নির্বাচিত হয়ে যে মাঠের খেলায় মনোযোগ হারাননি, মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা সেটির আরেকটি প্রমাণ দিলেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের বিপক্ষে। তার পেস-তোপে মাত্র ৬৩ রানে অলআউট হয়েছে তামিম-স্মিথদের দল। বল হাতে রংপুর রাইডার্স অধিনায়ক উত্তাপ ছড়ানোর সঙ্গে করেছেন টি-টুয়েন্টিতে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং।

মঙ্গলবার কুমিল্লার টপঅর্ডারের চার ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে পাঠিয়েছেন মাশরাফী। তামিম ইকবাল, এভিন লুইস, ইমরুল কায়েস ও স্টিভেন স্মিথকে আউট করেছেন। চার তারকাকে ফেরাতে মাত্র ১১ রান খরচ করেছেন ৪ ওভারে। সঙ্গে আছে একটি মেডেন।

আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া টি-টুয়েন্টি মিলিয়ে এটিই মাশরাফীর ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। আগের সেরা বোলিংটি ছিল আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে। ২০১২ সালের জুলাইয়ে বেলফাস্টে স্বাগতিকদের বিপক্ষে ১৯ রানে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন নড়াইল এক্সপ্রেস। আর বিপিএলে প্রথমবার পেলেন চার উইকেট, আগের বিপিএল সেরা ছিল ১৬ রানে ৩ উইকেট।

মাশরাফীর সামনে রীতিমত হাঁসফাঁসই করেছেন কুমিল্লার বিশ্বমানের ব্যাটসম্যানরা। দুই ওপেনার তামিম ইকবাল (৪) ও এভিন লুইস ৮ রানের বেশি করতে পারেননি। ব্যর্থতা ধরে রেখে ইমরুল কায়েস করেছেন মাত্র ২। অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথকে রানের খাতাই খুলতে দেননি রংপুর অধিনায়ক।

মাশরাফীর পাশাপাশি বিধ্বংসী ছিলেন রংপুরের অন্য বোলাররাও। ২০ রানে তিন উইকেট নিয়েছেন স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপু। দুই উইকেট নিয়েছেন আরেক পেসার শফিউল ইসলাম। অলরাউন্ডার ফরহাদ রেজার শিকার এক উইকেট।

রংপুরের বোলারদের তোপে নিজেদের সর্বনিম্ন ইনিংসের লজ্জার রেকর্ড গড়েছে কুমিল্লা। গত বিপিএলে সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে ৬৭ রানে অলআউট হয়েছিল দলটি, সেটাই আগের সর্বনিম্ন, এখন দুইয়ে।


আরও পড়ুন

২ Comments

Comments are closed.