নির্বাচন - জানুয়ারি ১০, ২০১৯

পুনরায় তফসিল ঘোষণা করে সৈয়দ আশরাফের আসনে নির্বাচন

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কিশোরগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হন জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। তবে সাংসদ হিসেবে শপথ গ্রহণের আগেই তিনি মারা যাওয়ায় ওই আসনে পুনরায় পূর্ণাঙ্গ তফসিল ঘোষণা করে শূন্য আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্পন্ন করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

আজ বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এই তথ্য জানিয়েছেন।

হেলালুদ্দীন আহমদ  বলেন, ‘কিশোরগঞ্জ-১ আসনের নির্বাচিত প্রার্থী সৈয়দ আশরাফ যেহেতু শপথ গ্রহণ করার আগেই মারা যান সেহেতু নতুন করে পূর্ণাঙ্গ তফসিল ঘোষণা করে শূন্য আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠান করবে ইসি। যেহেতু উনি শপথ না নিয়েই মারা গেছেন সেহেতু তাঁকে তো আমরা সংসদ সদস্য হিসেবে বিবেচনা করতে পারি না।’

ইসি সচিব বলেন, ‘নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের নিয়ে আমরা গেজেট প্রকাশ করেছি। গেজেট প্রকাশের তিন দিনের ভেতরে শপথ গ্রহণ করার কথা। কিন্তু সৈয়দ আশরাফ শপথ গ্রহণের আগেই মারা গেছেন। এখন সংসদ সচিবালয় থেকে আমাদের কাছে একটি চিঠি দিয়ে জানাবে যে, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম শপথ গ্রহণ করতে পারেননি। শপথ গ্রহণের আগেই তিনি মৃত্যু বরণ করেছেন। পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণের জন্য ইসিকে জানাবে। এর পরিপেক্ষিতে পরবর্তীকালে আমরা নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য প্রস্তুতি নেব।’

হেলালুদ্দীন আহমদ  বলেন, ‘সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম যেদিন মারা গেছেন সেদিন থেকে পরবর্তী ৯০ দিনের ভেতরেই আমরা পুনরায় নির্বাচন সম্পন্ন করব। দ্রুতই সংসদ সচিবালয় থেকে আমাদেরকে চিঠি দিয়ে জানাবে। চিঠি পাওয়া মাত্রই আমরা তফসিল ঘোষণা করব।’

এসব ব্যাপারে জানতে চাইলে সংসদ সচিবালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব ড. জাফর আহমদ খান বলেন, ‘যেহেতু নির্বাচন কমিশন জেনেছে যে সৈয়দ আশরাফ মারা গেছেন সেহেতু আসনটি হয়তো শূন্য ঘোষণা করবে ইসি। কারণ তিনি তো শপথ নেননি। তবে পুরো প্রসেসটি এখনো ক্লিয়ার না। আইন মন্ত্রণালয়ে বা নির্বাচন কমিশনে কথা বললে হয়তো দুই একদিনের ভেতরে সব ক্লিয়ার হয়ে যাবে যে, কারা আসলে আসনটি শূন্য ঘোষণা করবে।’

ফুসফুসে ক্যানসারের কারণে গত বছরের জুলাই মাসে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কিশোরগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে তিনি বিজয়ী হন। কিন্তু সাংসদ হিসেবে শপথের আগেই গত ৩ জানুয়ারি রাত ১০টার দিকে মারা যান সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। মরদেহ বাংলাদেশে নিয়ে আসার পর ৬ জানুয়ারি রাজধানীর বনানী কবরস্থানে কিশোরগঞ্জ-১ আসনের টানা পাঁচবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্যর দাফন সম্পন্ন হয়।


আরও পড়ুন