আর কোনো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় নয়, নিরাপত্তা পরিষদে জানাল বাংলাদেশ

আর কোনো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেবে না বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে বাংলাদেশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, মিয়ানমার থেকে আসা আর কোনো রোহিঙ্গাকে তাদের পক্ষে আশ্রয় দেয়া সম্ভব নয়। খবর চ্যানেল নিউজ এশিয়ার।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে বলেন, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া কয়েক লাখ রোহিঙ্গার প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া নিয়ে তৈরি হওয়া সংকট খারাপ থেকে আরও খারাপের দিকে গেছে। তিনি এ বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

২০১৭ সালের রাখাইনের উত্তরাঞ্চলে সেনাবাহিনীর অভিযানে দেশ ছেড়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয় কয়েক লাখ রোহিঙ্গা। সে সময় থেকে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে প্রায় সাড়ে সাত লাখ রোহিঙ্গা মুসলিম বসবাস করছে।

২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইনের বেশ কয়েকটি পুলিশ ও সেনা চেকপোস্টে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে রোহিঙ্গাদের গ্রামগুলোতে অভিযান চালায় সেনাবাহিনী। সেখানে অভিযানের নামে নির্বিচারে গুলি করে রোহিঙ্গাদের হত্যা, ধর্ষণ এবং রোহিঙ্গাদের বাড়ি-ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়। এই ঘটনাকে জাতিগত নিধন বলে উল্লেখ করেছে জাতিসংঘ।

নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে শহিদুল হক বলেন, নিরাপত্তা পরিষদকে আমি অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, মিয়ানমার থেকে আর কাউকে আশ্রয় দেয়ার মতো অবস্থায় নেই বাংলাদেশ।

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের একটি চুক্তি হয়েছে। তবে রোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়ার বিষয়ে তাদের নিরাপত্তার ওপর জোর দিয়েছে জাতিসংঘ।


আরও পড়ুন