এক কাপ চায়ের দাম মিগ-২১ যুদ্ধবিমান

অভিনন্দন বর্তমান নামে ভারতীয় বিমান বাহিনীর এক উইং কমান্ডারকে আটক করে সাড়া ফেলে দিয়েছিল পাকিস্তান। এরপর সেই বিমান সেনাকে মুক্তি দিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে আলোচনায় আসে দেশটি।

এর মাঝে আরেকটি খবর ছড়িয়ে পড়ে। সেটা হলো- ওই ভারতীয় বিমান সেনাকে পাকিস্তানে যে চা খাওয়ানো হয়েছিল, তার দাম হিসাবে মিগ-২১ নেওয়া হয়েছে। এমনই একটি ক্যাশ মেমো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ক্যাশ মেমোটি পাকিস্তান বিমান বাহিনীর অফিসার্স মেসের। যেখানে আইটেমের ঘরে লেখা হয়েছে ‘চা’। আর প্রাইজের ঘরে লেখা হয়েছে ‘মিগ-২১’।

ক্যাশ মেমোটি ‘পাকিস্তান ডিফেন্স’ নামে একটি ওয়েব সাইটে আপলোড করা হয়। এই ওয়েব সাইটটি পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে গবেষণা করে। এছাড়া পাকিস্তানের বেসরকারি টিভি চ্যানেল এআরওয়াইয়ের খবরেও এটি প্রকাশ করা হয়েছে। তবে এই ক্যাশ মেমোর সত্যতা নিয়ে দেশটির সেনাবাহিনী থেকে নিশ্চিত হওয়া না গেলেও তা আলোচনার নতুন খোরাক জুগিয়েছে।

এই সেই ক্যাশ মেমো। ছবি: পাকিস্তান ডিফেন্স

যে বিমানটি ভূপাতিত করার দাবি করে পাকিস্তান সেটা হচ্ছে মিগ-২১। রাশিয়ার তৈরি এই যুদ্ধবিমানকে এখন সেকেলে হিসাবে দেখা হয়। অপরদিকে এই বিমান থেকে আরো উন্নত যুদ্ধবিমান এফ-১৬ রয়েছে পাকিস্তানের কাছে। যেটি যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি।

উল্লেখ্য, কাশ্মীর সীমান্তে যুদ্ধাবস্থার মধ্যে ২৬ ফেব্রুয়ারি সকালে আকাশে লড়াই করে ভারতের দুটি বিমান গুলি ভূপাতিত করার দাবি করে পাকিস্তান। এর একটি পড়ে পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে, অন্যটি পড়ে ভারতীয় অংশে।

যে বিমানটি পাকিস্তানের সীমানার মধ্যে ভূপাতিত হয় সেটির পাইলট ছিলেন উইং কমান্ডার অভিনন্দন। বিমান ভূপাতিত হওয়ার পর অভিনন্দন প্যারাসুট নিয়ে নিচে নেমে আসেন। এসময় তাকে আটক করে স্থানীয় তরুণরা। পরে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী সেখানে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে ক্যাম্পে নিয়ে আসে।

এই ঘটনার পর পাকিস্তানের আন্তবাহিনী জনসংযোগ অধিদপ্তর (আইএসপিআর) দুইটি ভারতীয় যুদ্ধ বিমান ভূপাতিত করার ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করে। প্রথম ভিডিওতে ওই পাইলটকে চোখ বাঁধা অবস্থায় দেখা যায়। পরবর্তীতে আরেকটি ভিডিও আপলোড করা হয়, যেখানে তাকে চোখ খোলা অবস্থায় একটি কাপে চা পান করতে দেখা যায়।

ভিডিওতে ভারতীয় পাইলট বলেন, পাকিস্তানি সেনারা আমাকে বিমান বিধ্বস্তের স্থান থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এরপর তারা আমাকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। আমি পাকিস্তানি সেনাদের ব্যবহারে মুগ্ধ। ভারতেরও উচিত এমন পথ অনুসরণ করা।

সবশেষ পাকিস্তানে তিন দিন আটক থাকার পর শুক্রবার রাত ৯টার পর ওয়াঘা সীমান্ত দিয়ে অভিনন্দন বর্তমানকে ভারতে ফেরত পাঠানো হয়।


আরও পড়ুন

1 Comment

  1. I simply want to tell you that I’m all new to blogging and definitely enjoyed this web page. Most likely I’m going to bookmark your blog . You absolutely come with fabulous writings. Thanks a lot for sharing with us your website.

Comments are closed.