দেশের খবর - মার্চ ১০, ২০১৯

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীর দায়িত্ব নিলেন গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক

গাইবান্ধার কলেজ শিক্ষার্থী প্রতিবন্ধী  জাহাঙ্গীর  আলমের  পড়ালেখার দায়িত্ব নিয়েছেন গাইবান্ধা জেলা  প্রশাসক  মো. আবদুল মতিন। তিনি গাইবান্ধা জেলায় যতদিন থাকবেন ততদিন জাহাঙ্গীর আলমের পড়ালেখায় আর্থিক সহযোগিতা করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। সেই সাথে তাকে প্রতিবন্ধী ভাতা দেওয়ার ব্যবস্থা করবেন তিনি।

রোববার (১০ মার্চ) সকালে নিজ কার্যালয়ে জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর আলমকে ডেকে এই প্রতিশ্রুতি দেন এবং তার হাতে নগদ টাকা তুলে দেন জেলা প্রশাসক। 

উল্লেখ্য, সাদুল্লাপুর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের মোলংবাজার উচ্চ বিদ্যালয়  থেকে ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে এসএসসি পরীক্ষায় মানবিক বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ হয়ে জাহাঙ্গীর  আলম উচ্চ মাধ্যমিক ১ম বর্ষে মানবিক বিভাগে ভর্তি হয় গাইবান্ধা সরকারি কলেজে। কিন্তু অর্থের অভাবে গত মাসে টিসি নিয়ে (১৭ ফেব্রুয়ারি) ধাপের হাট শাহ আজগর আলী ডিগ্রি কলেজে ভর্তি হয়। 

গত ৬ মার্চ দৈনিক শিক্ষায় ‘‘প্রতিবন্ধী জাহাঙ্গীরের অর্থাভাবে লেখাপড়া বন্ধের পথে’’ শিরোনামে রিপোর্ট প্রকাশিত হলে তা গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। জাহাঙ্গীর আলমের জন্য সব প্রকার ফি মওকুফের জন্য শাহ আজগর আলী ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মো. আলেক উদ্দিনকে নির্দেশ দেন তিনি।

গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিন বলেন, শিক্ষার উন্নয়নকে সবসময় অগ্রাধিকার দিয়ে আসছি। অদম্য মেধাবীদের সহায়তা ও শিক্ষার মান উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করছি। আমার লক্ষ্য, অর্থের অভাবে যেন কারো লেখাপড়া বন্ধ না হয়। এদিকে জেলা প্রশাসকের এই সহযোগিতা পেয়ে জাহাঙ্গীর আলমের বাবা মো. বাতাস আলী জানান, আমি খুব খুশি হয়েছি। জেলা প্রশাসকের জন্য প্রাণ খুলে দোয়া করছি।


আরও পড়ুন