এবার সাগরকন্যার মঞ্চে ‘ইত্যাদি’

বিনোদন রিপোর্ট , মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ
মার্চ ১২, ২০১৯ ৮:১৩ অপরাহ্ণ

দেশের জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’র এবারের পর্ব ধারণ করা হয়েছে পটুয়াখালী জেলার নৈসর্গিক লীলাভূমি সাগরকন্যা কুয়াকাটায়। ভৌগলিক অবস্থানের কারণে কেবলমাত্র এই সৈকত থেকেই সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের দৃশ্য উপভোগ করা যায়। ১৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের কুয়াকাটা সৈকত দেশের অন্যতম নৈসর্গিক স্থান। বাংলাদেশের যখন যে স্থানে ইত্যাদি ধারণ করা হয় সেই স্থানটির বৈশিষ্ট্যকে কেন্দ্র করেই সেট নির্মাণ করা হয়। ফলে দর্শকরা যেমন ঐ স্থানটি সম্পর্কে জানতে পারেন, তেমনি নিত্য-নতুন লোকেশনের কারণে প্রতিবারই সেট নির্মাণেও আসে বৈচিত্র্য। এবারও তাই করা হয়েছে। পেছনে সমুদ্র রেখে সেটের দুপাশে অর্ধশতাধিক মাছ ধরার নৌকা রেখে বানানো হয়েছে মঞ্চ। কুয়াকাটার ঐতিহ্যের সঙ্গে সাদৃশ্য রেখে নির্মাণ করা আলোকিত মঞ্চের সামনে হাজার হাজার দর্শকের উপস্থিতিতে ধারণ করা হয় এবারের ইত্যাদি।

দিনে-রাতে অনুষ্ঠান ধারণের যে প্রচলন ইত্যাদি শুরু করেছিল তার ধারাবাহিকতা দেখা যাবে এবারের পর্বেও। সব সময় রাতের আলোকিত মঞ্চে ‘ইত্যাদি’ ধারণ করা হলেও কুয়াকাটার এই প্রাকৃতিক রূপ, সাগরের ফেনিল জলের ঢেউ রাতের বেলায় দেখানো সম্ভব নয় বলে সুন্দরবন, রাঙ্গামাটি ও কক্সবাজারের মত এখানেও গোধূলি লগ্নে ইত্যাদির ধারণ শুরু হয়। আশেপাশে তেমন কোন জনবসতি না থাকলেও অনুষ্ঠান শুরুর আগেই অনুষ্ঠানস্থল কানায় কানায় ভরে যায়। আমন্ত্রিত দর্শক ছাড়াও হাজার হাজার মানুষ আশেপাশের গাছ ও রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে মন্ত্রমুগ্ধের মত উপভোগ করেছেন ইত্যাদির নান্দনিক সব পর্ব। অবাক বিস্ময়ে দেখেছেন একটি অনুষ্ঠান তৈরী করতে কতটা শ্রম দিতে হয়। আর এ জন্যেই ইত্যাদি আজ দেশ সেরা অনুষ্ঠান, সব শ্রেণী পেশার মানুষের অন্তরের অনুষ্ঠান।

ইত্যাদির এই পর্ব একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচারিত হবে ২৯ মার্চ রাত ৮ টার বাংলা সংবাদের পর। ইত্যাদি রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ পাওয়া