শিক্ষা - মার্চ ১৩, ২০১৯ ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ

প্রাথমিকের শিক্ষকরা ১১তম গ্রেডই

প্রাথমিকের শিক্ষকরা তাদের দাবি অনুযায়ী ১১তম গ্রেডই পাবেন বলে মন্তব্য করেছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব জাকির হোসেন। মঙ্গলবার শাহবাগ পাবলিক লাইব্রেরিতে এক অনুষ্ঠানে তিনি শিক্ষক নেতাদের সঙ্গে আলোচনাকালে মন্তব্য করেন বলে জানা গেছে।

ওই অনুষ্ঠানের উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা জনাব মোজাহারুল ইসলাম সোহেল। তিনি বলেন, অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী। আমি ছিলাম বিশেষ অতিথি। অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মহোদয় এর সাথে আমি বেতন বৈষম্য নিয়ে আলোচনা করলে মন্ত্রী মহোদয় আশ্বাস প্রদান করেন যে সহকারি শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য অতি শীঘ্রই নিরসন হবে এবং সহকারি শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড প্রদান করবেন।

তিনি আরো বলেন, মন্ত্রী মহোদয় সবার সাথে অতি শীঘ্রই আনুষ্ঠানিকভাবে বৈঠকে মিলিত হবেন বলে আমাকে আশ্বাস প্রদান করেন। এসময় প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি শামসুদ্দীন মাসুদের সাথে আমার ফোন দিয়ে কথা বলেন।

প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি শামসুদ্দীন মাসুদ বলেন, শ্রদ্ধেয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয়ের সাথে কুশল বিনিময়ের পর আমি মহোদয়কে বলেছি, নির্বাচনী ইশতেহারে আমরাই (সহকারী শিক্ষকরা) বেতন বৈষম্যের দাবি অন্তর্ভুক্ত করিয়েছিলাম। সহকারী প্রধান শিক্ষক পদ দেওয়া হলে আমাদের বৈষম্য নিরসন না হয়ে বৈষম্য চিরস্থায়ী রূপ লাভ করবে। আমরা চাই শতভাগ পদোন্নতিসহ ১১তম গ্রেডে বেতন স্কেল প্রধান করে প্রধান শিক্ষকের সাথে বৈষম্য নিরসন।