ক্যাম্পাস - এপ্রিল ২, ২০১৯

ভিপি নুরের ওপর ডিম হামলা!

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম (এসএম) হলে ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরকে অবরুদ্ধ করার পর তার ওপর ডিম নিক্ষেপ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মো. ফরিদ হাসানকে মারধরের ঘটনায় প্রতিবাদ জানাতে মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) বিকাল পাঁচটার দিকে সঙ্গীদের নিয়ে ভিপি নুর এসএম হলে প্রবেশ করলে এসব ঘটনা ঘটে। পরে সন্ধ্যা সাতটার দিকে প্রাধ্যক্ষের উপস্থিতিতে হল থেকে বের হন নুর। তখন সঙ্গীদেরসহ তার ওপর গণহারে ডিম নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে।

সাধারণ ছাত্ররা এ ঘটনা হল শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা ঘটিয়েছে বলে জানালেও এসএম হলের ভিপি কামাল হোসেন দাবি করেছেন, ছাত্রলীগ নয় সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে নুরের ওপর ডিম নিক্ষেপ করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীরা জানান, এসএম হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মো. ফরিদ হাসানকে সোমবার (১ এপ্রিল) রাতে মারধর করে হল থেকে বের করে দেয় ছাত্রলীগ। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে সোমবার (২ এপ্রিল) বিকাল ৪টায় টিএসসির রাজু সন্ত্রাসবিরোধী ভাস্কর্যের সামনে মানববন্ধন করা হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ডাকসু ভিপি নুর। মানববন্ধন শেষে কয়েকজন শিক্ষার্থীকে সঙ্গে নিয়ে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে এসএম হলে প্রবেশ করেন তিনি। তখন নুরকে লক্ষ্য করে ডিম নিক্ষেপ করা হয়। 

তবে নুর ও তার সঙ্গে থাকা শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, নুর এসএম হলে প্রবেশ করার পরপরই হল শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি তাহসান হোসেন রাসেল ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান তাপসের নেতৃত্বে তাদের অবরুদ্ধ করা হয়। এসময় হল সংসদের অনুমতি না নিয়ে হলে প্রবেশ করায় নুরকে গালিগালাজ করেন হল সংসদের ভিপি কামাল হোসেন এবং জিএস জুলিয়াস সিজার তালুকদার। এক পর্যায়ে নুরকে ধাক্কা দেন কামাল। তখন তাদের মধ্যে উত্তপ্ত বাদানুবাদ হয়। নুরের সঙ্গে সাধারণ শিক্ষার্থী অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ প্যানেল থেকে ডাকসু নির্বাচনে অংশ নেওয়া নেতারাও ছিলেন।

বেলা সোয়া ছয়টার দিকে হল প্রাধ্যাক্ষ অধ্যাপক মাহবুবুল আলম জোয়ার্দার সেখানে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন। সাতটার দিকে নুর ও তার সঙ্গীদের নিয়ে হল থেকে বের হন তিনি।  এ সময় সঙ্গীসহ তার গায়ে ডিম নিক্ষেপ করা হয়।

এ বিষয়ে এখনও নুর বা তার সঙ্গীরা গণমাধ্যমের কাছে কোনও মন্তব্য করেননি।

তবে প্রত্যক্ষদর্শী সাধারণ শিক্ষার্থীরা ছাত্রলীগের কর্মীরা নুর ও তার সঙ্গীদের ওপর ডিম ছুড়েছে বলে দাবি করলেও এসএম হলের ভিপি কামাল বলেছেন, ‘এসব মিথ্যা অভিযোগ। মাদক ব্যবসায়ীকে বাঁচানোর জন্য তিনি (নুর) হলে এলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা তার ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে ডিম নিক্ষেপ করেছে।’

এর আগে হল সংসদের নেতারা নুরের কাছে হলে প্রবেশের কারণ জানতে চাইলে নুর বলেন, ‘অভিযোগ নিয়ে হল প্রাধ্যক্ষের সঙ্গে কথা বলতে এসেছি।’

প্রসঙ্গত, সোমবার রাতে হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মো. ফরিদ হাসানকে পিটিয়ে হল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে হল সংসদের ভিপি-জিএসসহ ছাত্রলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে। মারধরের ঘটনায় ফরিদের মাথা ফেটে যায়। আহত ফরিদ উর্দু বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানাতেই রাজু ভাস্কর্যের সামনে মানববন্ধন করে এসএম হলে এসেছিলেন নুরসহ অন্য ছাত্রনেতারা।


আরও পড়ুন