লাইফ স্টাইল - এপ্রিল ৩, ২০১৯ ১১:২৮ পূর্বাহ্ণ

গরমে তরমুজের উপকারিতা!

গরমের ফল হিসেবে সকলেরই পছন্দ তরমুজ। এই ফলে শতকরা প্রায় ৯২ ভাগ পানি আছে। তরমুজ খেলে সহজেই পানির তৃষ্ণা মেটে। এছাড়া তরমুজের আরো অনেক উপকারিতা রয়েছে। গরমে শরীর ঠাণ্ড রাখতে তরমুজের জুড়ি নেই বলা যায়। আকার-আকৃতিতে তরমুজ যেমন বড়, তেমনি গুণের ভাণ্ডারও সমৃদ্ধ। অন্যান্য পুষ্টি উপাদানের পাশাপাশি তরমুজে আছে বিটা ক্যারটিন, ভিটামিন বি-১ এবং বি-২ পাওয়া যায়।

প্রতি ১০০ গ্রাম তরমুজে ৯০ থেকে ৯৫ ভাগই জলীয় অংশ। এছাড়াও প্রতি ১০০ গ্রাম তরমুজ থেকে ১৬ কিলোক্যালরি খাদ্য শক্তি ও ০.২ গ্রাম ফ্যাট পাওয়া যায়। তরমুজ আয়রনের ভালো উৎস। ১০০ গ্রাম তরমুজে ৭.৯ মি.গ্রা আয়রন থাকে। এছাড়া ৩.৩ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ০.২ গ্রাম প্রোটিন ও ১.১ মি.গ্রা ক্যালসিয়াম পাওয়া যায়। এছাড়াও ১ মি.গ্রা ভিটামিন সি, ০.০২ মি.গ্রা বি-১, ০.০৪ মি.গ্রা বি-২ এবং ০.৩ মি.গ্রা অন্যান্য খনিজ উপাদান থাকে।

লাইকোপেন নামক উপাদানের জন্য তরমুজের রং লাল হয়, এটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যুক্ত। তরমুজ ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়। রয়েছে ভিটামিন সি ও বিটা-ক্যারোটিন যা হৃদরোগ, এক্সিমা ইত্যাদি রোগের প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এর বিটা ক্যারোটিন দৃষ্টি শক্তি ভালো রাখতে ও ছানি পড়া সমস্যা প্রতিহত করে। তরমুজে ফ্যাট বা চর্বি নেই বললেই চলে। তাই এটা খেলে উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ ও কোলেস্ট্রলের মাত্রা বৃদ্ধির ঝুঁকি কম থাকে।

গরমে জুস করে অথবা কেটে তরমুজ খাওয়া যায়, দুটোই স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। জলীয় অংশ ও ভিটামিন থাকায় এটা শরীর ও ত্বক সুন্দর রাখতে সাহায্য করে। তাছাড়া ত্বকের যত্ন নিতে নানান রূপচর্চায়ও তরমুজ ব্যবহার করা যায়। বর্তমানে তরমুজে নানা রকমের রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার করা হচ্ছে যা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক। তাই তরমুজ কেনার সময় সচেতন থাকা প্রয়োজন।