ভৈরব - এপ্রিল ১০, ২০১৯

ভৈরবে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত সর্দার নিহত, এসআইসহ আহত ৬

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মহরম আলী নামে এক ডাকাত সর্দার নিহত হয়েছে।নিহত মহরম আলী পৌর শহরের কালিপুর গ্রামের আলাউদ্দিন মিয়ার ছেলে।

এছাড়া বন্দুকযুদ্ধে এসআই এম জাহাঙ্গীর আলমসহ পুলিশের ছয় সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানা যায়।আহত পুলিশ সদস্যদের ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ওসি মোখলেছুর রহমান মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ  প্রতিনিধিকে মোবাইল ফোনের জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১.৩০ মিনিটে দিকে গোপন তথ্যে পুলিশ জানতে পারে শিমুলকান্দি ইউনিয়নের চাঁনপুর ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় একদল লোক ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে। খবর পেয়ে ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোখলেছুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়।

ছাড়া বন্দুকযুদ্ধে এসআই এম জাহাঙ্গীর আলম সহ পুলিশের ছয় সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানা যায়।আহত পুলিশ সদস্যদের ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ওসি মোখলেছুর রহমান মুক্তিযোদ্ধার কন্ঠ  প্রতিনিধি মোবাইল ফোনের জানান.মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১.৩০ মিনিটে দিকে গোপন তথ্যে পুলিশ জানতে পারে শিমুলকান্দি ইউনিয়নের চাঁনপুর ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় একদল লোক ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে। খবর পেয়ে ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোখলেছুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়।

এ সময় ডাকাত দলের সদস্যরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলিবর্ষণ শুরু করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে ডাকাত দলের সদস্যরা পিছু হটে। পরে পুলিশ সদস্যরা এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে তল্লাশিকালে বুকে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারাত্মক আহত এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করে। পরে তাকে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই ব্যক্তিকে মৃত ঘোষণা করেন।

এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি (লোকাল গান) অস্ত্র, পাঁচ রাউন্ড গুলি , দুটি রাম দা, ২৫ বোতল ফেনসিডিল ও একশ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেন পুলিশ।

তার বিরুদ্ধে ভৈরবসহ বিভিন্ন থানায় ডাকাতি, অস্ত্র ও মাদক আইনে অন্তত এক ডজন মামলা রয়েছে। কথিত বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় পুলিশের ওপর হামলাসহ অস্ত্র ও মাদক আইনে তিনটি মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।


আরও পড়ুন