কটিয়াদী - এপ্রিল ১১, ২০১৯

কটিয়াদী উপজেলা নির্বাচন অনিয়মে স্থগিত, টানা তিনদিনের তদন্ত সম্পন্ন

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অনিয়মের টানা তিনদিনের তদন্ত শেষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার ছিল শেষ দিন। তার আগে মঙ্গলবার থেকে কটিয়াদীতে নির্বাচন কমিশনের তিন সদস্যের কমিটি এসে তদন্তে অংশ নেন।

নির্বাচন স্থগিত হয়ে যাবার পর ২৭ মার্চ নির্বাচন কমিশন থেকে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির প্রধান করা হয় নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব কামাল উদ্দিন বিশ্বাসকে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব মিজানুর রহমান ও ঢাকা বিভাগের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা রাকিব উদ্দিন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. তাজুল ইসলাম জানান, তিন দিনের তদন্ত নির্বাচন সংশ্লিষ্ট প্রায় সবার লিখিত সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। কারো কারো কাছ থেকে মৌখিক সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের। সাক্ষ্য দিয়েছেন নির্বাচনের দিন দায়িত্ব অবহেলার জন্য বহিষ্কার হওয়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) শফিকুল ইসলাম ও কটিয়াদী থানার ওসি মোহাম্মদ সামসুদ্দীনও।

এই উপজেলায় ভোট হয় ২৪ মার্চ। আওয়ামী লীগের প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সহ তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক তানিয়া সুলতানা। দলটির বিদ্রোহী হিসেবে মাঠে আছেন তিনজন। তাঁরা হলেন উপজেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি লায়ন আলী আকবর (দোয়াত-কলম), উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য মো. মোশতাকুর রহমান (ঘোড়া), উপজেলার সহশ্রাম ধুলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলতাফ উদ্দিন (মোটরসাইকেল)। দলীয় পরিচয় নেই-এমন দুই প্রার্থী শহিদুজ্জামান স্বপন ও আনার হোসেন রানা চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন।


আরও পড়ুন