কিশোরগঞ্জের খবর - এপ্রিল ১৭, ২০১৯

কিশোরগঞ্জে মরদেহ নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল

বৈশাখী মেলাকে কেন্দ্র করে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে দোকান কর্মচারী সাগর মিয়া নিহত হয়েছে। সাগরের ঘাতকদের বিচারের দাবিতে মরদেহ নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে কিশোরগঞ্জ শহরের হারুয়া এলাকাবাসী। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহের অভিযোগে ৩ জনকে আটক করেছে।

জানা গেছে, জেলা শহরের হারুয়া এলাকায় অবৈধভাবে বসানো একটি বৈশাখী মেলাকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার দুপুরে মেলার আয়োজকদের সঙ্গে সাগরের কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনার জের ধরে রাত ৮টার দিকে বাড়ি ফেরার পথে শহরের গাইটাল পাট গবেষণা ইনস্টিটিউটের পেছনের গেটের পেছনের রাস্তায় ধারালো অস্ত্র নিয়ে সাগরের ওপর হামলা করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে নেয়ার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে উত্তেজিত এলাকাবাসী হারুয়া চৌরাস্তা মোড়ে জড়ো হলে পুলিশের সঙ্গে তাদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। ৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। এ ঘটনায়
বুধবার দুপুরে ঘাতকদের বিচার দাবিতে হারুয়া এলাকাবাসী সাগরের মরদেহ নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি কিশোরগঞ্জ শহরের আখড়াবাজার এলাকায় এলে পুলিশ আটকে দেয়ার চেষ্টা করে। তবে পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে মিছিলটি আখড়া বাজার, কালীবাড়ি, স্টেডিয়াম, বটতলা হয়ে আবার হারুয়ায় গিয়ে শেষ হয়। বিক্ষোভকারীরা এ ঘটনায় নিহত সাগরের ঘাতকদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আহসান হাবীব জানান, এখনও পর্যন্ত কেউ অভিযোগ নিয়ে আসেনি। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহের অভিযোগে ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।


আরও পড়ুন