মিঠামইন - এপ্রিল ১৭, ২০১৯

নুসরাতের খুনিদের দ্রুত বিচার সহ স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রী নির্যাতন বন্ধের প্রতিবাদে মিঠামইনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন উপজেলার কাটখাল ইউনিয়ন সম্মেলিত ছাত্র সমাজের উদ্দ্যোগে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি উবাইদুল হাসান কামরুলের নেতৃত্বে “ফেনী সোনাগাজীর মাদ্রাসার মেধাবী ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি কে পুড়িয়ে হত্যা ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রী হত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে মিটামইন উপজেলার কাটখাল ইউনিয়নে মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মিঠামইন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি জনাব রইছ উদ্দিন আহমেদ, কাটখাল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি উবাইদুল হাসান কামরুল, কাটখাল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব এনায়েত হোসেন বাহার, কাটখাল পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের  আই.সি জনাব ফরিদুল ইসলাম ফরিদ, কাটখাল ইউনিয়ন ফ্রেন্ডস ক্লাবের সভাপতি জনাব এইচ এম জাহাঙ্গীর, কাটখাল ইউনিয়ন কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের  সভাপতি গাজী মোঃ আবুল হোসাইন, কাটখাল ইউনিয়ন  ইসলামী আন্দোলনের সভাপতি ডাঃ মোঃ এনামুল হাসান, বিজয়, উদয়, কামরুজ্জামান, কাউছার, সেতু প্রমুখ।

এছাড়াও মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন কাটখাল ইউনিয়নের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, ছাত্র ছাত্রী বৃন্দ ও সর্বস্তরের জনতা।

কাটখাল বাজারে ঘন্টাব্যাপী চলা এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচিতে ইউনিয়নের ৫ টি স্কুলের প্রায় হাজারখানেক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধন বক্তারা নুসরাত জাহান রাফিকে হত্যাকারী খুনি ফেনী সোনাগাজী ফাযিল মাদ্রাসার অধক্ষ্য সিরাজ উদ্দৌলা সহ জড়িত সকল খুনিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন। বক্তারা বলেন এদেরকে এমন শাস্তি দেওয়া হোক যেন ভবিষ্যতে নুসরাত জাহান রাফির মত আর কাউকে জীবন দিতে না হয়। রাফি হত্যায় জড়িত খুনিদের খুব দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে যা দেখে সস্তি পাবে সারা দেশের মানুষ। এমনটাই প্রত্যাশা মানববন্ধন এবং প্রতিবাদ সমাবেশে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষের।


আরও পড়ুন