মদন গোপালসহ সকল অসাধু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

পবিত্র রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ, ভেজাল বিরোধী অভিযান অব্যাহত ও ভেজাল মিষ্টি প্রস্তুতকারী মদন গোপাল সহ সকল অসাধু অসৎ এবং অতি মুনাফালোভী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে কিশোরগঞ্জ বিক্ষুব্ধ নাগরিক সমাজ।

৩০এপ্রিল মঙ্গলবার সকালে শহরের কালীবাড়ি মোড়ে উক্ত মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় ও মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

বিক্ষুব্ধ নাগরিক সমাজের সমন্বয়ক মোঃ শফিক কবিরের স্বাগত বক্তব্যসহ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন জেলা কনজ্যুমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ( ক্যাব) সভাপতি সাংবাদিক আলম সারওয়ার টিটু, সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মনোয়ার হোসেন রনি, অধ্যাপক আব্দুল গনি, প্রতিদ্ধনী থিয়েটারের অধিকর্তা ম ম জুয়েল, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চু, জেলা এপেক্স ক্লাবের সভাপতি ফিরোজ উদ্দিন ভূঁইয়া, সাংবাদিক শাহজাহান সাজু, সাবেক যুবলীগ সদস্য সচিব আশিক জামান এলিন, সংগীত শিল্পী আবুল হাশেম, শিক্ষিকা শাহনাজ পারভীন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, জেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক শামসুল ইসলাম খান মাসুম, কিশোরগঞ্জ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আসাদুজ্জামান খান মনিরসহ কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের বিক্ষুব্ধ জনগণ, সামাজিক সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

বক্তব্যে বক্তাগণ বলেন- আসন্ন পবিত্র রমজান উপলক্ষে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল ও ভেজাল বিরোধী অভিযান অব্যাহত রাখার ব্যাপারে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানায় সেই সাথে ঘটে যাওয়া গত ২৮ এপ্রিল পাকুন্দিয়া কোল্ডস্টোরেজে জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযানে বেরিয়ে আসা মেয়াদ উত্তীর্ণ নষ্ট মিষ্টি ও খেজুর সংরক্ষণ করায় তা ধ্বংস ও জরিমানা করা হয়।

এ সংবাদ বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচার হওয়ার পর ফুঁসে ওঠে কিশোরগঞ্জের বিক্ষুব্ধ নাগরিক সমাজ। বক্তাগণ দাবি করেন কোল্ডস্টোরেজ মালিককে জরিমানা করা হয়েছে কিন্তু উপযুক্ত প্রমাণ থাকা সত্ত্বেও কেন মদন গোপাল ও খেজুর মালিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন? তাদের দাবী অসাধু ব্যবসায়ী মদন গোপাল সহ সকল অসৎ ও অতি মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদেরকে চিহ্নিত করে প্রতিষ্ঠান বন্ধ সহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।