আন্তর্জাতিক - মে ১১, ২০১৯

স্কুলে যাওয়া যে দেশে বিপজ্জনক!

স্কুল পাঠদানের জন্য আদর্শ জায়গা হলেও তা বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে বুরকিনা ফাসোতে। দেশটিতে অনেক অঞ্চলে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা এখন ভয়ে আর স্কুলে যান না। খবর বিবিসির।

বুরকিনা ফাসো’র উত্তরে ফোবে শহর থেকে অল্প দূরত্বে অবস্থিত একটি স্কুলের শ্রেণিকক্ষের এক পাশে জড়ো করে রাখা হয়েছে শিক্ষার্থীদের বসার চেয়ার এবং ডেস্ক। স্কুলটি গত বছর থেকে বন্ধ হয়ে আছে।

স্কুলটির প্রধান শিক্ষক স্যামুয়েল সোয়াদোগো বিবিসিকে বলেন, এই এলাকায় একদল অস্ত্রধারির হামলার কারণে ক্লাস বন্ধ করে দেয়া হয়।

এছাড়া তিনি বলেন, হামলাকারীরা অনেক স্কুল পুড়িয়ে ফেলেছে। শিক্ষকদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে। সেই হামলার ঘটনার পর স্কুলের বেশিরভাগ শিক্ষক এবং কর্মীরা ভয়ে পালিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, যখন একজন শিক্ষককে হত্যা করা হয়, তখন কেউ কিছুই করেনি। আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। ফলে আমাদের নিজেদের রক্ষা করতে হবে।

বিবিসির প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, বুরকিনা ফাসো’র উত্তর, সাহেল এবং পূর্ব-এই তিনটি অঞ্চলে ২৮৬৯টি স্কুলের মধ্যে ১১১১টি স্কুল বন্ধ হয়েছে গত কয়েকমাসে।

দেশটির উত্তরের এই অঞ্চলগুলো মালি এবং নাইজার সীমান্তের কাছে। আর এই সীমান্তে জিহাদি জঙ্গিরা তৎপরতা চালাচ্ছে কয়েক বছর ধরে। জঙ্গিদের হামলার কারণে সেখানে একের পর এক স্কুল বন্ধ হয়ে দেড় লাখ শিশু ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।


আরও পড়ুন