জাতীয় - 1 week ago

৪ জুলাই শুরু হচ্ছে হজ ফ্লাইট

মধ্যপ্রাচ্যগামী ফ্লাইট সঙ্কটের কারণে এ বছর ওমরাহ হজ করতে পারছেন না ২০ হাজার যাত্রী। ফলে ভিসা ও বাড়িভাড়া বাবদ বাংলাদেশের ক্ষতি হবে প্রায় ১০০ কোটি টাকা। আগামী ৪ জুলাই শুরু হচ্ছে এ বছরের হজ ফ্লাইট, চলবে ৫ আগস্ট পর্যন্ত। ফিরতি ফ্লাইট শুরু হবে ১৭ আগস্ট।

শনিবার (১১ মে) দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানায় হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ।

প্রতি বছর হজের পাশাপাশি ওমরাহ করতে সৌদি আরব যান লক্ষাধিক বাংলাদেশি। এর আগে বছরের শুরুতে প্রথম কয়েক মাস ওমরাহ হজ করতে পারলেও এবার বছরজুড়েই মিলবে এ সুযোগ। গত ৮ মে পর্যন্ত ১ লাখ ৬২ হাজার ৫০৮টি ওমরাহ ভিসা পেয়েছে বাংলাদেশ।

মানুষের বাড়তি আগ্রহকে কাজে লাগিয়ে এর মধ্যেই ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা রুটের বিমান ভাড়া বেড়ে ৫০ হাজার থেকে ৯০ হাজার টাকা হয়েছে। তারপরও বিমানের টিকিট না পাওয়ায় ২০ হাজারের বেশি যাত্রী সৌদি আরব যেতে পারছেন না।

হজ এজেন্সিজ ‍অ্যাসোসিয়েশন (হাব) সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, ঢাকা-জেদ্দার কোন টিকেট নেই। বাংলাদেশে এয়ার লাইসেন্স একটি বাড়িতে ফ্লাইট দিয়েছিলো। সেটি অনলাইনে আসার কিছুক্ষণের মধ্য সবগুলো টিকেট শেষ হয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, ২০ হাজার ওমরা যাত্রী ভিসা হোটেল ও বিমান বাড়া বাবত যে টাকা পরিশোধ করা হয়েছে, তার পরিমাণ হবে ৯০ থেকে ১০০ কোটি টাকা। এই টাকা আর ফেরত নেয়া যাবে না। মধ্যপ্রাচ্য-গামী বিমান ভাড়া দ্বিগুণেরও বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে।

প্রতি বছরের মতো এবারও এয়ারলাইন্সগুলো শিডিউল ঘোষণা না করায় মধ্য রমজান থেকে বাড়ি ভাড়ার নিয়ম থাকলেও সেটা দিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছে। হজ ফ্লাইট শুরু হবে জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে।

হাব সভাপতি বলেন, এই বছর হজ যাত্রী সংখ্যা ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। প্রথম হজ ফ্লাইট শুরু ৪ঠা জুলাই।

ওমরাহযাত্রীদের জটিলতা এড়াতে বাংলাদেশ বিমানের যেসব রুটে যাত্রী সংখ্যা কম, সেসব বিমান এনে ঢাকা জেদ্দা রুটে দেয়ার পাশাপাশি বিদেশি এয়ারলাইন্সগুলোর হ্যান্ডলিং, ল্যান্ডিং, পার্কিংসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা বাড়ানোর দাবি হাবের।