দেশের খবর - মে ১৪, ২০১৯

বরগুনায় অপহৃত শিশু আবদুল্লাহ উদ্ধার, টাকাসহ নারী অপহরণকারী আটক

বরগুনা থেকে শিশু অপহরণের ১০ ঘন্টা পরে শিশুসহ অপহরণকারী নারীকে আটক করেছে পুলিশ। সেইসাথে তার কাছ থেকে চুরি করে নেয়া ২ লাখ ৬২ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

রবিবার রাত ১১টার দিকে উদ্ধারকৃত সাড়ে ৩ মাসের শিশু আবদুল্লাহকে তার বাবা-মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।

বরগুনা উরবুনিয়া গ্রামের নাসির উদ্দিন সিকদার জানিয়েছেন, রবিবার সকাল ১০টার দিকে তার সৎ বোনের মেয়ে জেসমিন তাদের বাড়িতে আসে। প্রায় ১০ বছর পরে ভাগ্নী বেড়াতে আসায় তারা আদর আপ্যায়ন করে বসতে দেয়। কিছুক্ষণ পরে জেসমিন তার সাড়ে ৩ মাসের মামাত ভাই আবদুল্লাহকে কোলে নিয়ে আদর করতে থাকে। একপর্যায়ে শিশুটিকে নতুন জামা কিনে দেবার কথা বলে ঘর থেকে বের হয়। এর আগে জেসমিন তার খালার ২ লাখ ৬২ হাজার টাকা চুরি করেছে। টাকা ও শিশুটিকে নিয়ে রাস্তায় এসে বরিশাল যাবার কথা বলে একটি মটর সাইকেল ঠিক করে। সেই মটর সাইকেলে বরিশাল রওনা দেয়। অন্য মটর সাইকেল চালকদের মাধ্যমে জানতে পেরে নাসির উদ্দিন সিকদার বরগুনা থানায় গিয়ে শিশু অপহরনের অভিযোগ করেন।

বরগুনা থানার উপ-পরিদর্শক সিদ্দিকুর রহমান জানিয়েছেন, থানায় অভিযোগের পরে তারা পার্শবর্তী জেলার থানাগুলোকে অবহিত করেন। রাতে পটুয়াখালী থানার মাধ্যমে খবর পাওয়া যায়, পটুয়াখালীর কাঠালিয়ায় এক নারীকে একটি শিশুসহ আটক করা হয়েছে। পরে বরগুনা থানা থেকে পুলিশ গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার ও অপহরণকারী জেসমিনকে আটক করা হয়। এসময় জেসমিনের কাছে চুরি করা ২ লাখ ৬২ হাজার টাকা পাওয়া গেছে।

বরগুনা থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন জানিয়েছেন, শিশু অপহরণকারী বরগুনা সদর উপজেলার এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের উরবুনিয়া গ্রামের শাহজাহান মিয়ার মেয়ে জেসমিন থানার আনার পরই অসুস্থ হয়ে পরে। তাকে অসুস্থ অবস্থায় বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জেসমিনের বিরুদ্ধে শিশু অপহরণ ও টাকা চুরির পৃথক দুটি মামলা হয়েছে।


আরও পড়ুন