অ্যাপলের পণ্য বর্জনের ডাক চীনে

বাণিজ্যযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকেই হুয়াওয়েকে নানাভাবে থামানোর চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র। এমনকি তার প্রধান অর্থ কর্মকর্তাকে কানাডায় গ্রেফতারও করিয়েছে তারা। তখন অ্যাপলের পণ্য বর্জন করতে শুরু করেছিল চীনারা। এবারও চীনে অ্যাপলের পণ্য বর্জন করার ডাক উঠল। তবে এবার কারণটা সম্পূর্ণ আলাদা।

রয়টার্সে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, মার্কিন প্রেসিডেন্টের নির্দেশে চিনা কোম্পানি হুহাওয়ের সঙ্গে হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার লেনদেন বন্ধ করেছে গুগলের পেরেন্ট কোম্পানি আলপাবাট।

এর পরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন চীনের সাধারণ মানুষ। সব ধরনের মার্কিন পণ্য বর্জন করার আহ্বান জানানো হয়েছে। চীনে অন্যতম জনপ্রিয় মার্কিন ব্র্যান্ড অ্যাপল। সোশ্যাল মিডিয়ায় মার্কিন কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছে চীনারা।

চীনে ইতোমধ্যেই ফেসবুক হয়াটসঅ্যাপ, গুগল, টুইটারের মতো সব ধরনের মার্কিন পরিষেবা নিষিদ্ধ। টুইটারের পরিবর্তে চীনের মানুষ Weibo নামের এই মাইক্রো ব্লগিং ওয়েবসাইট ব্যবহার করেন।

Weibo তে অ্যাপলের বিরুদ্ধে ইতোমিধ্যেই সোচ্চার হয়েছেন দেশটির নাগরিকরা। এক ব্যাক্তি লিখেছেন ‘আমি এই সিদ্ধান্ত দেখে হীনম্মন্যতায় ভুগছি। একটু টাকা জমিয়ে আমি আই-ফোন বিক্রি করে নতুন স্মার্টফোন কিনবো।’

ইতোমধ্যেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের ‘বিদেশি কোম্পানি হয়রানি’ করার সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছে বেইজিং। ইতোমধ্যেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সব ধরনের হুহাওয়ের পণ্য বিক্রি বন্ধ হয়েছে।

অ্যাপল আই-ফোন থেবে হুয়াও স্মার্টফোনে ভালো ফিচার পাওয়া যায়। এতো ভালো একটা কোম্পানি থাকা সত্ত্বেও আমরা কেন অ্যাপল প্রোডাক্ট ব্যবহার করি?’ Weibo তে লিখেছেন এক চীনা নাগরিক।


আরও পড়ুন