দেশের খবর - মে ২২, ২০১৯

ডোমারে কাঁদতে কাঁদতে থানায় ছাত্রীর অভিযোগ, যুবকের কারাদন্ড

নীলফামারী জেলার ডোমারে স্কুল ছাত্রীকে ইফটিজিংয়ের দায়ে বখাটে যুবককে ৬মাসের কারাদন্ড
দিয়েছে ডোমার উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক উম্মে ফাতিমা।

মঙ্গলবার দুপুরে এ দন্ডাদেশ দেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে ফাতিমা। প্রাইভেট পড়ে বাড়ী ফেরার পথে ডোমার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ডোমার পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের পশ্চিম বোড়াগাড়ী কলেজ পাড়া গ্রামের চা দোকানী নুরুল ইসলামের বখাটে ছেলে আব্দুর রশিদ(২০) ডোমার রেল ঘুমটির মোড়ে অশ্লিল ভাষা ব্যবহার করে উত্ত্যক্ত করে। মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে থানায় গিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ করলে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থল হতে আব্দুর রশিদকে আটক করে ডোমার উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে ফাতিমা ঘটনাস্থলে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে মোবাইল কোর্ট মামলা নং- ২৪/১৯ দন্ডবিধির ৫০৯ধারায় আব্দুর রশিদকে ৬মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

ডোমার থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি)মোস্তাফিজার রহমান ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, মেয়েটির নিজে কাঁদতে কাঁদতে থানায় হাজির হয়ে অভিযোগ দিলে আমি দ্রুত পুলিশ পাঠিয়ে বখাটে যুবক আব্দুর রশিদকে ঘটনাস্থল হতে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করলে আদালত ৬মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন। দুপুরেই আসামীকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।


আরও পড়ুন