কুলিয়ারচরে ভিজিএফ এর চাল পায়নি অনেক দুস্থরা!

কার্ড নিছে টিপ নিছে চাউল না দিয়ে বেড় করে দিছে

কার্ড নিছে টিপ নিছে চাউল না দিয়ে বের করে দিছে এভাবে কান্না জড়িত কণ্ঠে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট অভিযোগ করলেন কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার ১নং গোবরিয়া আব্দুল্লাপুর ইউনিয়নের পূর্ব গোবরিয়া গ্রামের বাসিন্দা ভিজিএফ কার্ডধারী দুস্থ ক্বারীমা (৩৫), কল্পনা (২৫), শরীফা (৩২), রহিমা (৫৫) ও রওশন আরা (৪৫)।

তারা মঙ্গলবার (২৮ মে) দুপুুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাউসার আজিজ ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ইয়াছির মিয়ার নিকট এ অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সূত্রে যানা য়ায়, পূর্বনির্ধারিত তারিখ অনূযায়ী গত (২৮ মে সোমবার) পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে গোবরিয়া আব্দুল্লাপুর ইউনিয়নে ৯ শ জন দুস্থদের মাঝে ১৩ হাজার ৫ শত কেজি ভিজিএফ এর চাল বিতরণ করার শেষ দিন ছিল । ওই দিন অন্যান্য কার্ডধারীদের মত সকাল ১০ টা থেকে ইউনিয়ন পরিষদের সামনে লাইনে দাড়িয়ে চাল আনতে তারা । বিকেলে অন্যান্যদের মত ৬নং ওয়ার্ড সদস্য মোঃ জাকির হোসেন সাইফুল তাদের নিকট থেকে ভিজিএফ এর কার্ড জমা ও মাস্টাররুলে টিপসহি নিয়ে চাল না দিয়ে পরিষদ থেকে তাদের বের করে দেয়। চাল না পেয়ে ওই সকল দুস্থরা স্থানীয় ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য মাহমুদা পারভীন মুক্তার নিকট অভিযোগ করেন। মুক্তা বিষটি সংশ্লিষ্ট পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আব্বাছ উদ্দিনের নিকট জানালে চেয়ারম্যান কোন কর্ণপাত না করায় কার্ডধারীদের নিয়ে মঙ্গলবার (২৮ মে) দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান ও মেম্বারের উপস্থিতিতে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

এ ছাড়াও ৩নং ওয়ার্ড সদস্য মোঃ দ্বীন ইসলাম জানান, তার ওয়ার্ডেও ১ জন কার্ডধারীকে চাল দেওয়া হয়নি।

২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাঈদুজ্জামান (জামান) বলেন, তার ওয়ার্ডেও অনেক কার্ডধারী চাল পায়নি। এমনকি অনেকেই চাল ওজনে ২-৫ কেজি করে কম পেয়েছে।

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য মোঃ জাকির হোসেন সাইফুল দুস্থ কার্ডধারীদের চাল না দিয়ে বের করে দেওয়ার কথা অস্বাীকার করে বলেন, আমি কার্ড জামা নিয়েছি। মাস্টাররুলে টিপ সহি নিয়েছি। চাল দেওয়ার দ্বায়িত্ব আমার না।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাউসার আজিজের সাথে যোগাযোগ করা হলে, তিনি মৌখিক অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এটা কোন অভিযোগই না। বেচাড়া (চেয়ারম্যান) চাল পাইছে কম, বাড়ী থেকে এনে দিবে?


আরও পড়ুন