কুলিয়ারচরে হাইওয়ে রাস্তার জায়গা দখল করে চাঁদা দাবীর অভিযোগ

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে প্রভাবশালী একটি পরিবার ভৈরব-কিশোরগঞ্জ হাইওয়ে রাস্তার আগরপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সরকারি জায়গা দখল করে দোকান বসিয়ে লাখ লাখ টাকা আদায়সহ অটোরিকসা স্ট্যান্ডের সিরিয়ালম্যানের নিকট চাঁদা দাবীর অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আগরপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত নাগর আলীর পুত্র আয়েত আলী (৫২), আহম্মদ আলী (৪৮), মোহাম্মদ আলী (৪৫) ও রহমত আলী (৪২) আগরপুর বাসস্ট্যান্ডস্থ রাস্তার পাশে সরকারী জায়গা দখল করে দোকান ঘর তৈরি করে ফল ব্যবসায়ী মোঃ জামাল উদ্দিন, সোহরাব, মোঃ আমির হোসেন, মিজান ও বিল্লাল মিয়ার নিকট ভাড়া দিয়ে লাখ লাখ টাকা আদায় করে নিয়েছে। অপর দিকে বাসস্ট্যান্ডস্থ সরকারি জায়গায় অটোরিকসা স্ট্যান্ডের সিরিয়াল দেওয়ার লাইনম্যান
মোঃ সাইফুল ইসলাম (৪০) এর নিকট থেকে প্রতিদিন ৬ শত টাকা চাঁদা দাবী করে আসছে ওই পরিবারের সদস্য রহমত আলী।

এ ব্যাপারে রোববার (২ জুন) সকালে সরেজমিনে আগরপুর বাসস্ট্যান্ড গিয়ে ফল ব্যবসায়ী মোঃ জামাল উদ্দিনের সাথে কথা বলে জানা যায়, আহম্মদ আলী তার নিকট থেকে গত নভেম্বর মাস হইতে প্রতি মাসে ২ হাজার টাকা হারে ৫ বছরের মেয়াদে অগ্রিম ১ লাখ ২০ হাজার টাকা নগদ নিয়ে রাস্তার পাশে সরকারী জায়গা ফল ব্যবসার জন্য তাকে ভাড়া দিয়েছে।

ফল ব্যবসায়ী করির হোসেনের সাথে কথা বলে জানা যায়, কিতাব আলী তার নিকট থেকে প্রতি মাসে ২ হাজার টাকা হারে ৫ বছরের মেয়াদে অগ্রিম ১ লাখ ২০ হাজার টাকা নগদ নিয়ে রাস্তার পাশে সরকারী জায়গা ফল ব্যবসার জন্য তার নিকট ভাড়া দিয়েছে।

ফল ব্যবসায়ী সোহরাবের সাথে কথা বলে জানা যায়, আয়েত আলী তার নিকট থেকে গত নভেম্বর মাস থেকে প্রতি মাসে ১হাজার ৫শত টাকা হারে ৫ বছরের মেয়াদে অগ্রিম ৯০ হাজার টাকা নিয়ে রাস্তার পাশে সরকারী জায়গা ভাড়া দিয়েছে।

ফল ব্যবসায়ী আমির হোসেনের সাথে কথা বলে জানা যায়, আহম্মদ আলী তার নিকট থেকে ৬/৭ মাস আগে প্রতি মাসে ৩হাজার ৫শত টাকা হারে ৫ বছরের মেয়াদে অগ্রিম ২ লক্ষ ১০হাজার টাকা নগদ নিয়ে সরকারী জায়গা সহ রাস্তার পাশে একটি দোকান ভাড়া দিয়েছে।

ফল ব্যবসায়ী মিজানের সাথে কথা বলে জানা যায়, মোহাম্মদ আলী তার নিকট থেকে গত নভেম্বর মাস থেকে প্রতি মাসে ৫ হাজার টাকা হারে ৫ বছরের মেয়াদে অগ্রিম ৩লক্ষ টাকা নগদ নিয়ে রাস্তার পাশে ফল বিক্রয়ের জন্য সরকারী জায়গা সহ একটি দোকান ভাড়া দিয়েছে।

ফল ব্যবসায়ী বিল্লালের সাথে কথা বলে জানা যায়, মোহাম্মদ আলী তার নিকট থেকে গত ৫/৬ মাস আগে প্রতি মাসে ২হাজার টাকা হারে ৫ বছরের মেয়াদে অগ্রিম ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা নিয়ে রাস্তার পাশে ফল বিক্রয়ের জন্য দোকান ভাড়া দিয়েছে।

এছাড়া অটোরিকশা লাইনম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, রহমত আলী তার নিকট থেকে একসময় প্রতিদিন ৬শত টাকা করে চাঁদা নিয়ে আসছিল। কিছুদিন আগে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও বাসস্ট্যান্ড বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক অটোরিকশা সিরিয়ালের টাকা বাসস্ট্যান্ড মাদরাসার উন্নয়ন কাজের জন্য মাদরাসা কমিটির নিকট জমা করা হয়। প্রতিদিন রহমত আলীকে চাঁদা না দিয়ে মাদ্রাসায় জমা করার ফলে এতে ক্ষিপ্ত হয়ে লাইনম্যান সাইফুলের নিকট পূনরায় সে প্রতিদিন ৬শত টাকা করে চাঁদা দাবী করে আসছে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় ছাইফুলকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে রহমত আলী।

এব্যাপারে আয়েত আলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, রাস্তার পার্শে তাদের একটি মার্কেট আছে। মার্কেটের ভাড়াটিয়ারা তাদের দোকানের পজিশন অনুযায়ী সরকারী জায়গায় দোকন ঘর তৈয়ারী করে ফলের ব্যবসা করে আসছে। চাঁদা দাবীর ব্যপারে অভিযুক্ত রহমত আলীর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্ঠা করেও সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় রামদী ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আলাল উদ্দিন বলেন, আয়েত আলী, আহম্মদ আলী, মোহাম্মদ আলী অবৈধ ভাবে হাইওয়ে রাস্তার সরকারী জায়গা দখল করে দোকান তৈয়ারী করে ভাড়া দেওয়ার ফলে রাস্তায় জানজটের সৃষ্টি হওয়ায় প্রতিদিন দূর্ঘটনার কবলে পড়ছে যাত্রীরা।

একাধিকবার অবৈধ দোকান সরিয়ে নেওয়ার জন্য ব্যবসায়ীদের চাপ দিলে ব্যবসায়ীরা কান্নাকাটি করে বলে অনেক টাকা দিয়ে ৫ বছরের জন্য দোকানের জায়গা ভাড়া নিয়ে ফলের ব্যবসা করে আসছি। এখন দোকান ঘর সরিয়ে নিলে আমরা রাস্তায় বসতে হবে। রাস্তায় জানজটনিরসনে সরকারী জায়গা দখল মুক্ত করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করেন এলাকাবাসী।


আরও পড়ুন