কিশোরগঞ্জ সদর - জুন ৭, ২০১৯

কিশোরগঞ্জ সদরের গ্রামীন জনস্বাস্থ্য উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ এগিয়ে চলছে

কিশোরগঞ্জ সদরের গ্রামীন জনস্বাস্থ্য উন্নয়ন প্রকল্প কাজ এগিয়ে চলছে। প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার ভিত্তিক প্রকল্প টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার ৩ নাম্বার গোল ও সরকারের প্রতিশ্রুতি আমার গ্রাম আমার শহর এর আওতায় গ্রামীন জনস্বাস্থ্য উন্নয়ন প্রকল্পের বিভিন্ন কাজ বাস্তবায়িত হচ্ছে। এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসের কমিউিনিটি ক্লিনিক।

কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসারমোঃ মাহদী হাসান জানিয়েছেন, জেলা সদরে এডিপির অর্থায়নে চারটি স্তরের কাজ চলমান রয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে হোটেল রেস্টুরেন্ট কর্মচারীদের স্বাস্থ্য সচেতন করা, তাদের কোন ছোঁয়াচে রোগ নেই তা নিশ্চিত করা এবং স্যানিটারি উপকরণ বিতরণ করা হচ্ছে। কমিউিনিটি ক্লিনিক বেইজড ব্লাড ডোনার ডাটাবেইজ তৈরী হয়েছে। ২৯ টি কমিউিনিটি ক্লিনিকে বিণামুল্যে ব্লাড গ্রুপিং টেস্ট এর জন্য রি-এজেন্ট সরবরাহ করা হয়েছে। গ্রামের গরীব রোগীদের ডায়াবেটিস, প্রেশার ও হার্টের রোগীদেরকে হেলথ কার্ড দেওয়া হবে। যাতে করে রোগীরা নিয়মিত ফ্রি ঢায়াবেটিস ও ব্লাড প্রেশার চেক করতে পারে এবং এসব তথ্য হেলথ কার্ডে রেকর্ড করা থাকে। দরিদ্র ডায়াবেটিস, ব্লাড প্রেশার ও হার্টের রোগীদের জন্য বিণামুল্যে জরুরী ওষধ সরবরাহ করা হবে। আমরা প্রাথমিক পর্যায়ে ১০ জন রোগীকে ২ মাসের ওষুধ দিয়েছি।

সম্প্রতি কিশোরগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ সৈয়দা জাকিয়া নুর লিপির উপস্থিতিতে সদর উপজেলার সকল ইউনিয়নের হোটেল-রেস্টুরেন্টের কর্মচারীদের স্বাস্থ্য সচেতন করা হয়েছে এবং মেডিক্যাল টেস্ট করে মেডিক্যাল সার্টিফিকেট সহ এপ্রোন, মাস্ক, গ্লাভস ও ক্যাপ দেয়া হয়েছে।


আরও পড়ুন