কিশোরগঞ্জে পৃথক ঘটনায় নিহত ৩, আহত ২৪

৮ জুন (শনিবার) কিশোরগঞ্জে পৃথক ঘটনায় ৩ জন নিহত ও ২৪ জন আহত হয়েছে।

জানা গেছে, তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে শনিবার সকালে মিঠামইনে গ্রামবাসীর সংঘর্ষে দীন ইসলাম (৪৮) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এছাড়া উভয় পক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে গিয়াস উদ্দিন (৫০) ও জাহের মিয়া (৪৫) নামে দুই জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। শনিবার সকালে উপজেলার কাটখাল ইউনিয়নের হাসিমপুর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

মিঠামইন থানার ওসি মো. জাকির রব্বানী মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ’কে জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে ছোটদের ফুটবল খেলায় এক নারীর শরীরে পানির ছিটা পড়েছিল। এই ঘটনা নিয়ে মাঠেই একটি ঝগড়ার ঘটনা ঘটেছিল। এর জের ধরে শনিবার সকালে গ্রামবাসীর দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হলে বল্লমের আঘাতে ঘটনাস্থলেই হাসিমপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে দীন ইসলামের মৃত্যু হয়। এছাড়া সংঘর্ষে গিয়াস উদ্দিনসহ উভয় পক্ষে আরো বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানিয়েছেন।

অন্যদিকে করিমগঞ্জ উপজেলায় ট্রাক্টর চাপায় আবু তাহের (৭২) নামে এক অটোরিকশার যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও চার যাত্রী আহত হয়েছেন।

শনিবার দুপুরে কিশোরগঞ্জ-করিমগঞ্জ সড়কের উপজেলার সমিতি বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আবু তাহের ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল উপজেলার বারোপাড়া এলাকার আব্দুল ওয়াহেদের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, কয়েকজন যাত্রী নিয়ে একটি অটোরিকশা চামড়া নৌ-বন্দরের দিকে যাচ্ছিলো। উপজেলার সমিতি বাজার এলাকায় পৌঁছালে একটি ট্রাক্টর অটোরিকশাটি চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই পাঁচজন যাত্রী গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আবু তাহেরকে মৃত ঘোষণা করেন। আহতদের কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অপরদিকে নিকলী উপজেলায় ট্রলারের ধাক্কায় মহরম আলী (১৮) নামে এক নৌকার যাত্রী নিহত হয়েছেন। শনিবার বিকেলে উপজেলার সিংপুর এলাকার ধনু নদীতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত মহরম আলী কিশোরগঞ্জের হাওরের ইটনা উপজেলার বাসিন্দা।

স্থানীয়রা জানান, বিকেলে উপজেলার ধনু নদীতে কোষা নৌকায় করে কয়েকজন যাত্রী পার হচ্ছিলেন। এ সময় একটি ইঞ্জিন চালিত ট্রলার কোষা নৌকাটিকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই নৌকার যাত্রী মহরম নিহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে।


আরও পড়ুন