কুলিয়ারচর - জুন ১৫, ২০১৯

কুলিয়ারচরে মায়ের সম্পত্তির লোভে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ভাইকে কুপালো বড় ভাই

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে মায়ের সম্পত্তির লোভে বকুল মিয়া (৩২)  নামে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ছোট ভাইকে কুপিয়ে হাসপাতালে পাঠালো বড় ভাই। উপজেলার উত্তর লক্ষ্মীপুর কাচাঁরীপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। বর্তমানে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী বকুল মিয়া হাসপাতালের বেডে মৃত্যুর সাথে পান্জা লড়ছে বলে জানা যায়।

শনিবার (১৫জুন) সকালে উপজেলার কাচাঁরীপাড়া গ্রামের মৃত কাশেম আলীর ছেলে মোঃ গোলাপ মিয়া (৫০)  অভিযোগ করে বলেন, তার পিতা প্রায় ২০ বছর আগে বৃদ্ধা মা, ৪ ভাই ও ১ বোন রেখে মারা যান। পিতার রেখে যাওয়া অল্প সম্পত্তি মা, ৪ ভাই ও ১ বোনের মধ্যে ভাগ বন্টন করে নিয়ে আলাদা হয়ে সংসার করে আসলেও প্রতিবন্ধী ছোট ভাই বকুল মিয়া ছাড়া বৃদ্ধা মায়ের খোঁজ খবর নেয়না কেউ। সরকার কর্তৃক সামান্য প্রতিবন্ধী ভাতা ও মানুষের সাহায্য সহযোগীতায় বৃদ্ধা মাকে নিয়ে অতি কষ্টে দিন যাপন করে আসছিল বকুল মিয়া। তাদের বড় ভাই তাহের উদ্দিন (৬০) দীর্ঘদিন যাবৎ মায়ের সামান্য ভিটে মাটি ভোগ দখলের চেষ্টা করে আসছে।

গত ৯ জুন সকালে তাহের উদ্দিন তার ছেলে সুমন মিয়া (২২), রিপন মিয়া (২০) ও স্ত্রী জড়িনা আক্তার (৪৫) কে সাথে নিয়ে জোড়পূর্বক মায়ের সম্পত্তি দখলসহ গাছের ফল ফলাদী নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় বৃদ্ধা মা ফুলেন্নেছা (৭৫) সহ দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ছোট ভাই বকুল বাধাঁ নিষেধ দিলে তারা মাকে লাঞ্চিত করে এবং বকুল মিয়াকে নির্মম ভাবে কুপিয়ে রক্তাক্ত গুরুতর জখম করে। বাধাঁ দিতে গেলে তারা ভাতিজা রাজিব মিয়াকেও রক্তাক্ত জখম করে। পরে এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে ভর্তিকরে।

বর্তমানে  বকুল মিয়া হাসপাতালের বেডে মৃত্যুর সাথে পান্জা লড়ছে। এ ঘটনায় ওইদিন ৯জুন রোববার সন্ধ্যায় গোলাপ মিয়া বাদী হয়ে কুলিয়ারচর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগটি এখনো আমলে নেওয়া হয়নি বলে জানা যায়।


আরও পড়ুন