কিশোরগঞ্জে পেটের ভেতরে ৪ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

কিশোরগঞ্জে পেটের ভেতরে করে ইয়াবা পাচারের সময় ৪ হাজার ১২৫ পিস ইয়াবাসহ মো. মামুন মিয়া (২৬) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) সকালে কিশোরগঞ্জ শহরের উকিলপাড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। পরে চিকিৎসকের পরামর্শে পেটের ভেতর থেকে পায়ুপথে ইয়াবা বের করা হয়। র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক লে. কমান্ডার, বিএন এম শোভন খান এর নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। আটক হওয়া মাদক ব্যবসায়ী মো. মামুন মিয়া করিমগঞ্জ উপজেলার রামনগর গ্রামের মো. ইদ্রিছ আলীর ছেলে।

র‌্যাব- ১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক লে. কমান্ডার, বিএন এম শোভন খান জানান, মাদককে নির্মূলের ক্ষেত্রে কিশোরগঞ্জ র‌্যাব নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার (২ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তারা কিশোরগঞ্জ শহরের উকিলপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানের সময় ১২৫ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী মো. মামুন মিয়াকে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে সে তার পেটের ভেতরে ইয়াবা থাকার কথা জানায়।

পরে চিকিৎসকের পরামর্শে পেটের ভেতরে থাকা ৪ হাজার পিস ইয়াবা পায়ুপথে বের করা হয়। লে. কমান্ডার, বিএন এম শোভন খান আরো জানান, মাদক ব্যবসায়ী মো. মামুন মিয়া দীর্ঘদিন ধরে টেকনাফ থেকে কিশোরগঞ্জে পেটের ভেতরে করে ইয়াবা পাচার করে আসছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তারের জন্য র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি শুরু করে।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) ভোরে সে কক্সবাজার হতে পেটের ভেতরে করে ইয়াবা আনছে বলে তথ্য পায় র‌্যাব। পরে অভিযান চালিয়ে মাদক ব্যবসায়ী মো. মামুন মিয়াকে আটকের পর তার প্যান্টের পকেট থেকে ১২৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা করা হয় এবং তার পেটের ভেতরে আরও ইয়াবা আছে বলে জানায়। পরবর্তীতে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী পেটের ভেতর থাকা ইয়াবাগুলো উদ্ধার করা হয়। র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে সে মাদক ক্রয়-বিক্রয় এর সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। এ ঘটনায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে আটক হওয়া মাদক ব্যবসায়ী মো. মামুন মিয়ার বিরুদ্ধে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও এম শোভন খান জানিয়েছেন।


আরও পড়ুন