এজবাস্টনে ৮৭ বছর বয়সী ভক্তের আবেগঘন দিন

বার্মিংহামে বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতের ম্যাচে গ্যালারি ছিল উৎসবমুখর। এজবাস্টন স্টেডিয়ামে একেকটা চার-ছয়ে উল্লাসে ফেটে পড়েছেন ভারতীয় সমর্থকরা, কোহলিদের সঙ্গে উইকেট উদযাপনও করেছে বাধভাঙা উচ্ছ্বাসে। কিন্তু ক্যামেরার নজরে ছিলেন ৮৭ বছর বয়সী এক ‘বিশেষ ভক্ত’।

নাম চারুলতা প্যাটেল। মঙ্গলবার ভারত-বাংলাদেশের ম্যাচের পুরোটা সময় গ্যালারিতে ছিলেন এই প্রবীণ ভক্ত। টুইটার-ফেসবুকে রীতিমতো সেনসেশনে পরিণত হন তিনি। এই বিশেষ ভক্ত সবার নজরে আসেন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভন তার অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে ছবি প্রকাশ করলে। তিনি লিখেন, ‘এটা ভালো লেগেছে। জানি না এই ভক্তের বয়স কত! কিন্তু আমার কাছে এটাই বিশ্বকাপের সেরা ছবি।’

এরপর ভারতীয় ভক্তরা টুইটারে ঝড় তোলেন এই প্রবীণ ভক্তের সমর্থনের ছবি দিয়ে। টিভিতেও তাকে দেখা গেছে উৎসাহ নিয়ে বাঁশি বাজিয়ে ভারতের একেকটি দারুণ মুহূর্ত উদযাপন করতে। শুধু ভক্ত কিংবা ধারাভাষ্যকারদের কাছেই নয়, ভারতীয় ক্রিকেটাররাও তার সঙ্গে কয়েকটি মুহূর্ত কাটিয়েছেন।

২৮ রানে জয়ের পর ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি তার সঙ্গে দেখা করেন মাঠের পাশে। সঙ্গে ছিলেন ম্যাচসেরা খেলোয়াড় রোহিত শর্মা। দুজনকে আশীর্বাদ করেন কয়েক দশক ধরে ক্রিকেটকে অনুসরণ করা চারুলতা। আইসিসি তাদের বিশ্বকাপের অফিসিয়াল টুইটারে লিখেছে, ‘কী চমৎকার ব্যাপার এটা! ভারতের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মা এজবাস্টনে এক ভক্তের সঙ্গে বিশেষ মুহূর্ত কাটালেন।’

কোহলিও উচ্ছ্বসিত, ‘এত ভালোবাসা ও সমর্থনের জন্য আমাদের সব ভক্তদের ধন্যবাদ দিতে চাই, বিশেষ করে চারুলতাজিকে। তিনি ৮৭ বছর বয়সী এবং সম্ভবত আমার দেখা সবচেয়ে আবেগপ্রবণ ভক্ত। বয়স শুধুই একটা সংখ্যা। ভালোবাসা আপনাকে অন্য জায়গায় নিয়ে যায়। তার আশীর্বাদ নিয়ে পরের ধাপে যেতে চাই।’

চারুলতা জানান, ভারত ১৯৮৩ সালে যখন প্রথমবার বিশ্বকাপ ট্রফি হাতে নেয় তখন লর্ডসের গ্যালারিতে ছিলেন তিনি। এবারও থাকতে চান, তার প্রত্যাশা কপিল দেবের মতো কোহলির হাতেও উঠবে সোনালি ট্রফি।


আরও পড়ুন