আন্তর্জাতিক - জুলাই ২৩, ২০১৯

পানামায় প্লাস্টিক ব্যাগ নিষিদ্ধ ঘোষণা

মধ্য আমেরিকার দেশ পানামায় প্লাস্টিক ব্যাগ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। জাতিসংঘ এই সমস্যাকে বিশ্বের সবচেয়ে বড়ো পরিবেশগত চ্যালেঞ্জ বলে ঘোষণা করেছে। এরই অংশ হিসেবে দেশটির সমুদ্র সৈকতসহ সব স্থানে এই প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

দুটি জলসীমাকে বিভক্তকারী সরু রেখার মতো ভূখণ্ড পানামার মোট জনসংখ্যা ৪০ লাখ। প্লাস্টিকের ব্যবহার নিষিদ্ধ করার মাধ্যমে পানামা বিশ্বের আরো ৬০টির বেশি দেশের কাতারে নিজেকে শামিল করল, যে দেশগুলো একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক ব্যাগের ব্যবহার সম্পূর্ণ কিংবা আংশিকভাবে নিষিদ্ধ বা প্লাস্টিক ব্যবহার নিরুত্সাহিত করতে করারোপ করেছে। যার মধ্যে লাতিন আমেরিকার দেশ চিলি ও কলম্বিয়া রয়েছে।

পানামার সুপারমার্কেট, ফার্মেসি ও খুচরা বিক্রেতাদের অবিলম্বে প্রচলিত পলিথিন প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে ২০১৮ সালে অনুমোদিত নীতি অনুযায়ী পাইকারি দোকানগুলো প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার বন্ধের জন্য ২০২০ সাল পর্যন্ত সময় পাচ্ছে।

প্লাস্টিক নিষিদ্ধের নির্দেশ অমান্যের ক্ষেত্রে জরিমানা করা হতে পারে। তবে পচনশীল খাদ্য সুরক্ষার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞার ব্যতিক্রম ঘটতে পারে।

প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার বন্ধের পদক্ষেপ বাস্তবায়নের প্রমাণস্বরূপ পানামার সড়কগুলোয় এরই মধ্যে ‘কম ব্যাগ, দীর্ঘ জীবন’ লেখাসংবলিত সাইনপোস্ট দেখা গেছে। বিশ্বের অন্যতম প্রাণবৈচিত্র্যপূর্ণ অঞ্চল লাতিন আমেরিকায় প্রায়ই পাখি, কচ্ছপ, সিল, তিমি ও মাছ ফেলে দেওয়া প্লাস্টিক ব্যাগ খেয়ে ফেলার বা এতে জড়িয়ে মারা যাওয়ার ঘটনা ঘটে। খবর- রয়টার্সের।


আরও পড়ুন