ভৈরব - 4 weeks ago

ভৈরবে গুজব সম্পর্কে সচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণায় পুলিশ

ভৈরব ছেলে ধরা সন্দেহে কোন ব্যক্তিকে আক্রমন না করে সরাসরি পুলিশকে কিংবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন করতে অনুরোধ জানিয়ে এ সচেতনতামূলক কর্মসূচির আওতায় কিশোরগঞ্জের ভৈরবে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা করা হচ্ছে।

২৪ জুলাই বুধবার সকাল থেকে ছেলে ধরা গুজব প্রতিহত করতে ভৈরব সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ রেজওয়ান দিপু ও ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোখরেছুর রহমান জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে এ কর্মসূচির আয়োজন করেন।

ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোখলেছুর রহমান বুধবার সকালে ভৈরব রেলওয়ে উচ্চ বিদ্যালয় এবং হাজী জহির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময় করেন। মতবিনিময় কালে মোঃ মোখলেছুর রহমান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ছেলে ধরা গুজবের সম্পর্কে আমরা সবাই জানি।

ছেলে ধরার নামে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাগল, অসুস্থ এবং অসহায় লোকদের গনপিটুনি দিয়ে আহত এবং নিহতের ঘটনা ঘটেছে।যারা গনপিটুনিতে অংশগ্রহণ করেছে এবং এ গুজব ছড়িয়েছে তাদের কিছু লোককে আইনের আওতায় আনা হয়েছে এবং বাকীদেরও আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদান করা হবে।

কিন্তু একটি অসাধু চক্র এ কথাটিকে পুঁজি করে গুজব ছড়িয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে।

তোমরা বাড়ি গিয়ে তোমাদের অভিভাবকদের জানাবে পদ্মা সেতুতে মানুষের মাথা লাগবে একথাটি গুজব।

কাউকে সন্দেহ করে আইন নিজের হাতে তোলা যাবে না। যদি কাউকে সন্দেহ হয় তাহলে ঐ ব্যক্তিকে সরাসরি পুলিশের হাতে তুলে দিতে হবে।

তোমাদের কিছু সহপাঠীরা এ গুজবে আতঙ্কিত হয়ে স্কুলে আসে তোমরা এ শিক্ষার্থীদের এবং তাদের অভিভাবকদের গিয়ে বিষয়টি বুঝাবে যাতে করে তোমাদের অনান্য সহপাঠীরা এই আতঙ্কটি কাটিয়ে তোমাদের সাথে পুনরায় নিয়মিত স্কুলে আসতে পারে।

এসময় ভৈরব থানার ওসি তদন্ত বাহালুল খান বাহার,এসআই মো.জাহাঙ্গীর আলমসহ বিদ্যালয়ের প্রায় ১২ শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিল।


আরও পড়ুন