কুলিয়ারচর - জুলাই ৩০, ২০১৯

কুলিয়ারচরে হাতুরীপেটা করে ৬ বছরের শিশুকে খুন

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে নিলয় নামে ৬ বছরের এক শিশুকে হাতুরীপেটা করে খুন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কুলিয়ারচর পৌর এলাকার ৯ নং ওয়ার্ডের মাসকান্দি গ্রামের মৃত আব্দুল জলিল (জিল্লু)’র ছেলে হবিব মিয়া সোমবার (২৯ জুলাই) দুপুরে পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া শুরু করে। একপর্যায়ে হবিব স্ত্রী পুতুলকে মারপিট করতে থাকে। পুতুল (৪৫) স্বামীর হাত থেকে আত্মরক্ষার জন্য প্রথমে দৌড়ে নিজ ঘরের বাথরুমে লুকিয়ে আত্মরক্ষার উপায় না পেয়ে দৌড়ে গিয়ে পার্শ্ববর্তী মোঃ জাহাঙ্গীর মোল্লার বাড়ীতে আশ্রয় নেয়। হবিব সেখানেও স্ত্রীকে মারপিট করার জন্য গেলে বাড়ীতে থাকা মহিলাদের সহযোগীতায় স্ত্রী পুতুল রক্ষা পায়। স্ত্রীকে মারতে না পেরে হবিব ক্ষুব্ধ হয়ে বাড়ী ফেরার পথে রাস্তার পাশে দাড়িয়ে থাকা পার্শ্ববর্তী বাড়ীর আনোয়ারুলের ৬ বছরের শিশু ছেলে নিলয়ের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে হাতুরী দিয়ে প্রচন্ড ভাবে আঘাত করে। এ সময় আলমগীর মোল্লার স্ত্রী আখি বেগম (৪৫) হবিব এর হাত থেকে শিশু নিলয়কে বাঁচাতে গেলে হবিব তাকেও আঘাত করে পালিয়ে যায়। এ সময় শিশু নিলয়ের চিৎকার শুনে এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে এসে রক্তাক্ত ও গুরুতর আহত অবস্থায় নিলয়কে উদ্ধার করে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। নিলয়ের অবস্থা আশঙ্খাজনক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই দিন রাত সাড়ে ১০ টার নিলয়ের মৃত্যু হয়। নিলয়ের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে রাত সাড়ে ১১ টার দিকে ঘাতক হবিব মিয়ার স্ত্রী পুতুল বেগমকে আটক করেছে কুলিয়ারচর থানা পুলিশ। মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) দুপুরে কুলিয়ারচর থানা পুলিশ ঘটনার স্থলে গিয়ে নিলয়ের মরদেহের সুরুতহাল তৈরী করেন।

এ ব্যাপারে কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল হাই তালুকদার বলেন, এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। ঘাতক হবিব মিয়াকে গ্রেফতারের চেষ্ঠা চলছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।


আরও পড়ুন