বিনোদন - 2 weeks ago

সানি লিওনকে পেতে ফোন, অতিষ্ঠ ব্যবসায়ীর জীবন

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে পর্ন তারকা সানি লিওন অভিনীত ‘অর্জুন পাতিয়ালা’ ছবি। আর সেই ছবির একটি অংশে নিজের ফোন নম্বর পড়েছেন তিনি। আর এতেই বাধে যত বিপত্তি।

আসলে সানি লিওন ছবিতে যে নম্বর বলছিলেন, সেটি তার ছিল না। অন্য এক ব্যক্তির ছিল। কিন্তু সিনেমাটি মুক্তির পর অনেকেই ধরে নেন এটি সানি লিওনের নিজস্ব ফোন নম্বর। ফলে একের পর এক কল আসতে থাকে নম্বরটির মালিক ব্যবসায়ী পুনিত আগরওয়ালের কাছে।

তিনি বিবিসিকে জানান, গত ২৬ জুলাই ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর থেকে তিনি প্রতিদিন গড়ে ১০০টি করে কল পাচ্ছেন। এতে জীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে।

পুনিত আগরওয়াল বলেন, ‘আমি এখন স্বপ্ন দেখারও সুযোগ পাই না। ২৪ ঘণ্টা একটার পর এটা কল আসতে থাকে। পরিচালক তো ছবি রিলিজের আগে অন্তত একবার যাচাই করে দেখতে পারতেন যে এই ফোন নম্বরটি সত্যি কেউ ব্যবহার করছেন কি না।’

এই ঘটনায় তিনি এতটাই বিরক্ত যে, তিনি চেষ্টা করছেন আইনগত পথে সিনেমায় তার নম্বরটিকে যেন শব্দ দিয়ে ঢেকে দেয়া হয় সেই ব্যবস্থা করতে। এদিকে ওই ব্যক্তি ফোন নম্বরটি বদলে ফেলতেও রাজি নন। কারণ তার ব্যবসার জন্য এবং অনেক বন্ধু নম্বরটি ব্যবহার করে থাকেন।

পুনিত আগরওয়ালের কাছে প্রথম ফোন আসে সিনেমাটি যেদিন মুক্তি পায়। কলার সানি লিওনের সঙ্গে কথা বলতে চান। কিন্তু তিনি রং নম্বর বলে কলটি কেটে দেন। এর পর একে একে কল আসতে থাকে।

পুনিত আগরওয়াল বলেন, ‘প্রথমে দুটি, এরপর তিনটি এভাবে যখন ১০টি কল পাই তখন ভেবেছিলাম আমার সঙ্গে কেউ রসিকতা করছে।’

সবাই ফোন করে বলছেন, ‘ আমি কি সানি লিওনের সঙ্গে কথা বলতে পারি?’

এরপর নম্বর নিয়ে কোন একটা ঝামেলা হয়েছে বুঝতে পেরে আগরওয়াল নিজেই সিনেমাটি দেখতে যান। দেখেন, সত্যিই ছবিতে তার নম্বরটি ব্যবহার করা হয়েছে।

পুনিত আগরওয়াল বলছেন, ছবি রিলিজের পর থেকে তিনি কাজ করতে পারছেন না। ঘুমাতে পারছেন না। এমনকি শান্তিতে খেতেও পারছেন না।

বেশিরভাগ কল এসেছে ভারতের পাঞ্জাব এবং হরিয়ানা রাজ্য থেকে। এছাড়া পাকিস্তান, দুবাই, অস্ট্রেলিয়া এবং ইতালি থেকেও কল পেয়েছেন পুনিত আগরওয়াল।

ছবির পরিচালক রোহিত যুগরাজ চৌহান এই বিষয় নিয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি। খবর: বিবিসি

অর্জুন পাতিয়ালা ছবির একটি গানের ভিডিও:


আরও পড়ুন