কাশ্মির প্রশ্নে ভারত-পাকিস্তানকে সংযত থাকার আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, কাশ্মির ইস্যুতে তাদের পররাষ্ট্রনৈতিক অবস্থানে কোনও পরিবর্তন হয়নি। শুক্রবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র মর্গান অর্টেগাস এ তথ্য জানান। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ভারত-পাকিস্তান উভয় পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছে ওয়াশিংটন।

সোমবার (৫ আগস্ট) ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মধ্য দিয়ে কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়। এদিকে জম্মু-কাশ্মিরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করতে পার্লামেন্টে একটি বিলও পাস করা হয়েছে। এই পদক্ষেপকে কেন্দ্র করে কাশ্মিরজুড়ে মোতায়েন করা হয় অতিরিক্ত সেনা। পর্যটক ও তীর্থযাত্রীদের কাশ্মির ছাড়ার নির্দেশ দেওয়ার পর গ্রেফতার করা হয়েছে সেখানকার শতাধিক স্থানীয় নেতাকে। ইন্টারনেট-মোবাইল পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। বিরাজ করছে থমথমে পরিস্থিতি।

নীতিগতভাবে যুক্তরাষ্ট্র কাশ্মিরকে ভারত ও পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক বিষয় হিসেবে দেখে থাকে। পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র জানান, এই নীতিতে কোনও পরিবর্তন আসেনি। আর আসলেও এখানে সেই ঘোষণা দেওয়া হতো না। যুক্তরাষ্ট্র কাশ্মির নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সংলাপের পক্ষে বলে জানান তিনি।

মর্গান অর্টেগাস বলেন, ‘আমরা সবাইকে সংযত থাকার আহ্বান জানাই। আমরা সেখানে শান্তি ও স্থিতিশীল পরিস্থিতি দেখতে চাই এবং কাশ্মিরসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ভারত-পাকিস্তানের সংলাপকে সমর্থন করি।’ এই বিষয়ে দুই দেশের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র নিবিড়ভাবে কাজ করছে বলে জানান তিনি।


আরও পড়ুন