কুলিয়ারচর - আগস্ট ১৬, ২০১৯

কুলিয়ারচরে স্কুল ছাত্রকে কুপিয়ে জখম, আটক-১

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে সাগর মিয়া (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রকে কুপিয়ে জখম করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ১৩ আগস্ট মঙ্গলবার বেলা ২ টার দিকে উপজেলার পশ্চিম নাজিরদিঘী গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। আহত সাগর পশ্চিম নাজিরদিঘী গ্রামের সৌদী প্রবাসী মোঃ গজনবী’র ছেলে ও কুলিয়ারচর সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের  ১০ম শ্রেণীর ছাত্র। এ ঘটনায় থানায় মামলা হলে ওইদিন রাতে মামলার এজাহারভূক্ত আসামী নয়ন মিয়া (৩০) কে পুলিশ আটক করে পরদিন বুধবার মাননীয় আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।


মামলার বাদী আহত ছাত্রের মা মোছাঃ জাহানারা বেগম অভিযোগ করে বলেন, গত ১৩ আগস্ট বেলা ২টার দিকে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে একই বাড়ির রাজু মিয়া (২৫), সজিব মিয়া (২৭), হামিদ মিয়া (৫০) ও নাইম মিয়া (৩০) সহ ৯ জন মিলে দেশীয় অস্ত্রাদি নিয়ে তাদের বাড়িতে হামলা করে বাড়ি-ঘর ভাংচুর করে ও তার স্কুল পড়ুয়া ছেলে সাগর মিয়াকে এলোপাতারী কুপিয়ে খুন করার চেষ্টা করে। এছাড়া জাহানারা বেগমকে বিবস্ত্র করিয়া শ্লীলতাহানী ঘটায়। এসময় তাদের ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে হামলাকারীদের হাত থেকে রক্তাক্ত ও গুরুতর আহত অবস্থায় সাগর মিয়াকে উদ্ধার করে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সাগরের অবস্থা আশংকাজনক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাগর মিয়াকে আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে প্রেরণ করেণ। এ ঘটনায় জাহানারা বেগম বাদী হয়ে কুলিয়ারচর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।


মামলায় অভিযুক্ত হামিদ মিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জাহানারা বেগমের  আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তারা কেউ জাহানারা বেগমের বাড়িতে হামলা করেনি। এমনকি সাগরকেও তারা কেউ মারধোর করেনি।


আরও পড়ুন