দেশের খবর - আগস্ট ২২, ২০১৯

মসজিদের ভেতর ইমামের মাথা বিচ্ছিন্ন মরদেহ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে মসজিদের ভেতর থেকে ইমামের মাথা বিচ্ছিন্ন মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার মগ্রা মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের মল্লিকপাড়া এলাকার নারায়নদিয়া বাইতুল জালাল জামে মসজিদের ভেতর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

এ সময় হত্যাকাণ্ডের আলামত হিসেবে দুটি ছুরি উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত ইমাম দিদারুল ইসলাম খুলনার তেরখাদা থানার রাজাপুর গ্রামের আফতাব ফরাজীর ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ জুলাই পার্শ্ববর্তী ছোট কাজীরগাঁও গ্রামের মসজিদের ঈমাম হাদিসুর রহমানের পরিচয়ে দিদারুল ইসলাম নারায়নদিয়া বায়তুল জালাল জামে মসজিদে আসেন।

ঈদের পরদিন মঙ্গলবার ইমাম প্রশিক্ষণের কথা বলে মসজিদ কমিটির কাছ থেকে ছুটি নেন। ছুটি শেষ করে গত শুক্রবার মসজিদে জুমার নামাজ পড়ান। ওই দিন জুমার শেষে আবারও তিনি ইমাম প্রশিক্ষণের কথা বলে ছুটি নিয়ে চলে যান। পরে মঙ্গলবার মসজিদে এসে আসরের নামাজ পড়ান। বুধবার দিবাগত রাতে এশার নামাজ পড়ানোর পর মুসল্লিরা চলে গেলে মসজিদের ভেতরে হুজুর কক্ষে অবস্থান নেন তিনি।

এদিকে বৃহস্পতিবার ভোরে ফজর নামাজের ওয়াক্ত শুরু হলেও আজান শুনতে না পেয়ে মুসল্লিরা মসজিদের হুজুরকে ডাকাডাকি করেন। পরে হুজুর কক্ষের বাইরে তালাবদ্ধ অবস্থায় দরজার ফাঁক দিয়ে ভেতরে হুজুরের গলাকাটা লাশ দেখতে পায়।

খবর পেয়ে সোনারগাঁ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

মসজিদ পরিচালনা পরিষদের সহ-সভাপতি আলী আকবর জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে ফজরের ওয়াক্ত শুরু হলেও মসজিদের আজান শুনতে না পেয়ে মুসল্লিরা ইমাম সাহেবকে ডাকাডাকি করলে তার কক্ষের বাইরে তালাবদ্ধ অবস্থায় বিছানার উপর তার তার মাথা বিচ্ছিন্ন মরদেহ দেখতে পায়।

সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক তাহের জানান, ঘটনাস্থল থেকে ইমামের মাথা বিচ্ছিন্ন  মরদেহ উদ্ধার করে। আলামত হিসেবে দুটি ছুরি ও বিছানাপত্র জব্দ করেছে।


আরও পড়ুন