জাতীয় - প্রচ্ছদ - আগস্ট ২৫, ২০১৯

ডিসির অভিযোগ প্রমাণিত হলে উদাহরণ সৃষ্টির মতো শাস্তি : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

জামালপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আহমেদ কবীর ভিডিও কেলেঙ্কারির বিষয়টিকে অনাকাঙ্ক্ষিত এবং অপ্রত্যাশিত বলে মন্তব্য করে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমরা প্রাথমিক তদন্ত করে ব্যবস্থা নিয়েছি।

রোববার (২৫ আগস্ট) সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, জামালপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) আহমেদ কবিরের বিরুদ্ধে উদাহরণ সৃষ্টির হওয়ার মতো শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তবে তার সর্বেোচ্চ কী শাস্তি হতে পারে এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, অবশ্যই উদাহরণ সৃষ্টি করার মতো শাস্তি হবে। সরকারি চাকরির বিধান মতে তার শাস্তি হবে। আমরা তদন্ত কমিটি করে দেব। কমিটি সব বিচার বিশ্লেষণ করে প্রতিবেদন দেবে। আমরা আশা করি, দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারব।

এর আগে সকালে আহমেদ কবীরকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করে রোববার (২৫ আগস্ট) আদেশ জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এছাড়া জামালপুরে নতুন ডিসি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত সচিব (পিএস) মোহাম্মদ এনামুল হক।

গত কয়েকদিন ধরে ফেসবুকে আপলোড করা চার মিনিট ৫৭ সেকেন্ডের ভিডিওতে জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরের খাস কামরায় যে নারীকে দেখা যাচ্ছে তা সম্প্রতি নিয়োগ পাওয়া পিয়ন বলে স্থানীয়রা শনাক্ত করেছে। ভিডিওতে ডিসির খাস কামরায় ওই নারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখা যায় ডিসিকে।

মাঠ প্রশাসনের একজন কর্মকর্তাকে তার খাস কামরায় একজন নারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখা যাওয়া নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। প্রাথমিক তদন্তের পরে তাকে ওএসডি করা হয়েছে বলে জানায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

অন্যদিকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ বিষয়টি তদন্ত করছে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত সচিব (জেলা ও মাঠ প্রশাসন অনুবিভাগ) আ. গাফ্‌ফার খান। এ বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হতে পারে বলে জানা গেছে।


আরও পড়ুন